চট্টগ্রামের সুফিসহ ৪ জনকে ৬ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে সৌদি সরকার

মসজিদ আল হারামে ক্রেন দুর্ঘটনা

0

সৌদি আরবের মক্কায় মসজিদ আল হারামে ক্রেন দুর্ঘটনার চার বছর পর নিহত এক ও আহত তিন বাংলাদেশিকে ক্ষতিপূরণ দিয়েছে সৌদি সরকার। দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংক সামা (সৌদি এরাবিয়ান মনিটারি অথরিটি) থেকে নিহত মোহাম্মদ আবুল কাশেম সুফির উত্তরাধিকার এবং আহত সরদার আবদুর রব ও মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিনের নামে চেক দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় নিহত আরও একজনের নামে শীঘ্রই চেক ইস্যু করা হবে।

নিহত আবুল কাশেম সুফির বাড়ি চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার কাঞ্চনাবাদ ইউনিয়নের পূর্ব এলাহাবাদে। ডিবিএইচ ইন্টারন্যাশনাল একটি কাফেলার মাধ্যমে তিনি হজে (হাজি নম্বর ০২০৪২২৬) গিয়েছিলেন।

সৌদি আরবে বাংলাদেশ দূতাবাস ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে এই তিন বাংলাদেশির পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পর সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিভিন্ন অংকের ক্ষতিপূরণ দিল।

মক্কায় মসজিদ আল হারামে ক্রেন দুর্ঘটনায় নিহত মোহাম্মদ আবুল কাশেম সুফির উত্তরাধিকারকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে প্রায় আড়াই কোটি টাকা (১০ লাখ সৌদি রিয়াল) দিচ্ছে। সুফির উত্তরাধিকাররা বাংলাদেশের চট্টগ্রামে থাকেন। অন্যদিকে একই দুর্ঘটনায় আহত সরদার আবদুর রব ও মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন পাচ্ছেন প্রায় সোয়া এক কোটি টাকা (পাঁচ লাখ সৌদি রিয়াল) করে। ক্রেন দুর্ঘটনায় আহত অপর বাংলাদেশি মোহাম্মদ নূরকেও সমপরিমাণ সোয়া এক কোটি টাকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। নূর বর্তমানে সৌদি আরবের জেদ্দায় অবস্থান করছেন।

পবিত্র মক্কা নগরীর মসজিদ আল হারামে ২০১৫ সালের ১১ সেপ্টেম্বর নির্মাণকাজে ব্যবহৃত একটি ক্রেন ছিঁড়ে পড়লে ১১৮ জন মারা যান। এই ঘটনায় আহত হন ৩৯৪ জন। এতে বাংলাদেশের একজন নিহত ও তিনজন আহত হন।

কাবা শরিফ ঘিরে নির্মিত বিশ্বের বৃহত্তম হচ্ছে এই মসজিদুল হারাম। প্রতি বছর ২০ থেকে ৩০ লাখ লোক হজ পালন করতে এই মসজিদে সমবেত হন। মসজিদুল হারামে নামাজির সংখ্যা প্রতি বছর বৃদ্ধি পাওয়ায় ২০১৫ সােলে সৌদি কর্তৃপক্ষ মসজিদ সম্প্রসারণের কাজ শুরু করে। ওই বছরের ১১ সেপ্টেম্বর যে ক্রেনটি ভেঙে পড়ে, সেটি মসজিদ সম্প্রসারণের কাজে ব্যবহার করা হচ্ছিল।

ওই দুর্ঘটনার পর সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ নিহত প্রত্যেকের পরিবারকে ১০ লাখ ও আহত ব্যক্তিদের প্রত্যেককে পাঁচ লাখ সৌদি রিয়াল দেওয়ার নির্দেশ দেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন