ওয়াসার খোঁড়াখুড়ি/ বৃষ্টি হলেই চট্টগ্রাম শহরের বুকে রাস্তার দুর্দশা চরমে!

0

রোববার রাত থেকে থেমে থেমে বৃষ্টির কারণে চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন স্থানে পানি জমে যায়। ওয়াসার নির্বিচার খোঁড়াখুড়ির কারণে অধিকাংশ সড়কেরই অবস্থা খুবই করুণ। আবহাওয়া অফিস বলছে, সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) সারাদিন আকাশ মেঘলা থাকবে। বৃষ্টি ও যানবাহন সংকটের কারণে মানুষের দুর্ভোগের শেষ নেই।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, থেমে থেমে বৃষ্টির কারণে নগরবাসীকে স্বস্তি দিলেও অক্সিজেন, মুরাদপুর, প্রবর্তক মোড়, বহদ্দারহাট, আগ্রাবাদ, হালিশহরের বিভিন্ন স্থানে সড়ক ও অলিগলিতে পানি জমে যায়।

ওয়াসার নির্বিচার খোঁড়াখুড়ির কারণে অধিকাংশ সড়কেরই বেহাল অবস্থা। অনেক জায়গাতেই কাদায় মাখামাখি। ফলে হেঁটে হোক ও যানবাহনে দুটোতেই যাতায়াত কঠিন হয়ে পড়েছে। অনেকে ভিজে অফিস ও স্কুলে আসা যাওয়া করেছেন। বৃষ্টি কমলে কোথাও পানি নামে, আবার কোথাও কিছুটা কমে যায়। বৃষ্টির কারণে খেটে খাওয়া মানুষের দুর্ভোগের শেষ নেই।

খাস্তগীর স্কুলের সামনে কথা হয় অভিভাবক শায়রা পারভিনের সাথে। তিনি বলেন, একদিকে বৃষ্টি ও যানবাহন সংকট, তার ওপর ওয়াসার খোঁড়াখুড়িতে রাস্তায় চলা কঠিন। তারপরও আসতেই হয়।’

গণপরিবহন সংকটেও সাধারণ মানুষ দুর্ভোগে পড়েছেন। মোড়ে মোড়ে বৃষ্টিতে ভিজে গণপরিবহনের জন্য ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করতে দেখা যায় অনেককে। এই সুযোগে রিক্সা ও অন্যান্য ছোট যানবাহনগুলো দ্বিগুণ ভাড়া আদায় করছে।

মুরাদপুর মোড়ে পরিবহনের জন্য অপেক্ষমাণ এক যাত্রী বলেন, ‘সকাল থেকে বৃষ্টির কারণে সড়কে যানবাহন কম। একঘন্টা গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছি। এখনো গাড়ি পাইনি।’

অন্যদিকে রিকশাচালক রহিমের যুক্তি, ‘ঝড়-বৃষ্টি যাই হোক রিকশা না চালালে তো পেট চলবে না। বৃষ্টিতে কষ্ট বেশি বলে ভাড়া একটু বেশি নিই।’

পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা যায়, সোমবার সারাদিন আকাশ মেঘলা মেঘাচ্ছন্ন থাকবে। কোথাও কোথাও হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে।

বাতাসের গতিবেগ দক্ষিণ ও দক্ষিণ পূর্ব দিক থেকে ঘন্টায় ১০-১৫ কিলোমিটার যা দমকা হাওয়া আকারে ৩০-৪০ কিলোমিটার বেগে প্রবাহিত হতে পারে। রাত ও দিনের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকবে। গত ২৪ ঘন্টায় ১৩.৩ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। পশ্চিম ও তৎসংলগ্ন এলাকায় লঘুচাপের কারণে চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরের জন্য ৩ স্থানীয় সংকেত ও নদী বন্দরের জন্য ১ নং নৌ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

সিএম/সিপি

Loading...
আরও পড়ুন