৪৪ লাখ টাকা আত্মসাৎ, চট্টগ্রামে রেলওয়ের প্রকৌশলীসহ ৫ জন দুদকের কব্জায়

1

ট্রেনের এসি কোচের জন্য চায়না থেকে কনসেন্ডার মটর কেনার নামে ৪৪ লাখ ৮ হাজার টাকা আত্মসাতের দায়ে রেল পূর্বাঞ্চলের (সিআরবি) প্রকৌশলীসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। বুধবার (২৯ ডিসেম্বর) দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়, চট্টগ্রাম-১ এর সহকারী পরিচালক এনামুল হক বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন।

অভিযুক্তরা হলেন, বাংলাদেশ রেলওয়ে পূর্ব (সিআরবি) আওতায় হালিশহর ট্রেনিং সেন্টারের প্রাক্তন বৈদ্যুতিক প্রকৌশলী আনোয়ার হোসেন, সিআরবির বিভাগীয় বৈদ্যুতিক প্রকৌশলী সদর (পূর্ব) তাকি আল যাওয়াল, সিআরবি এফএ এন্ড সিএও-ই এর কর্মচারী কামরুন নাহার, সিআরবি এসএসএই এর কর্মচারী শাহ আলম ও সিআরবি পাহাড়তলী এসএসএইতে কর্মরত আবুল কালাম আজাদ।

দুদক সূত্রে জানা যায়, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে লাভের আশায় ই-টেন্ডারের মাধ্যমে সিআরবি রেলওয়ে ট্রেনের কোচের মালামাল কেনার নামে ৪৪ লাখ ৮ হাজার টাকা আত্মসাৎ করে। তাদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধি ৪০৯ ও ১০৯ সহ ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি দমন কমিশনের আইনের ৫ (২) ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়, চট্টগ্রাম-১ এর সহকারী পরিচালক এনামুল হক।

এর আগে চলতি বছরের ১ এপ্রিল রেল পূর্বাঞ্চলের সাবেক মহাব্যবস্থাপকসহ চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। খালাসি পদে ১৯ জনকে নিয়োগে অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে এক কোটি দুই লাখ ৪৪ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে এ মামলা করা হয়েছিল।

মামলায় দুর্নীতির মাধ্যমে নিয়োগপ্রাপ্ত খালাসি, ঠিকাদার, স্কুল শিক্ষক, পিয়ন, রেলের ড্রাইভারসহ আরও আটজনকে আসামি করা হয়েছে। দুদক চট্টগ্রাম সমন্বিত জেলা কার্যালয়-২ এর উপ-সহকারী পরিচালক মো. শরীফ উদ্দিন বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

মামলার আসামিদের মধ্যে ছিলেন— রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের সাবেক মহাব্যবস্থাপক (জিএম) ফারুক আহমেদ, মহাব্যবস্থাপক (প্রকল্প) মিজানুর রহমান, সহকারী মহাব্যবস্থাপক জোবেদা আক্তার, টিএসও রফিকুল ইসলাম, জিএমের গাড়ি চালক হারাদন দত্ত, শাহাজাহানপুর রেলওয়ে স্কুলের সাবেক অধ্যক্ষ সুরাইয়া সুলতানা, স্কুলের অফিস সহকারী আক্তার হোসেন, খালাসি আবুল বাশার খান, টিকিট প্রিন্টিং স্কুলের প্রধান শিক্ষক মৃণাল কান্তি দাশ, রেলের ঠিকাদার আমিরুজ্জামান আশীষ ও পারভিন আক্তার।

এএম/কেএস

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

1 মন্তব্য
  1. জাকির আহমেদ বলেছেন

    প্রিয বার্তা সম্পাদক, আসসালামু আলাইকুম। নিউজটির কর্মকর্তাদের নাম, পদবী, কর্মরত স্থান অনেক ভুল আছে। সংশোধন করে দেওয়ার জন্য বিশেষ ভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm