পাঠানটুলীতে শিশুকে যৌন নিপীড়ন: অভিযুক্ত নৈশ কর্মচারী গ্রেপ্তার

0

পাঠানটুলি খান সাহেব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুর উপর যৌন নিপীড়নে অভিযুক্ত দীপক দেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বুধবার (৩১ জুলাই) রাত আটটায় বাকলিয়া থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশের একটি টিম। বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক নিজে বাদি হয়ে বুধবার (৩১ জুলাই) মামলা দায়েরের প্রেক্ষিতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ডবলমুরিং থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জহির হোসেন বলেন, ‘পাঠানটুলি খান সাহেব সরকারি প্রাথমিকে বিদ্যালয়ের শিশু শিক্ষার্থীর উপর নিপীড়নের ঘটনায় অভিযুক্ত দীপক দে আর রাত আটটায় বাকলিয়া থেকে গ্রেপ্তার হয়েছেন।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে দীপক দে ঘটনার সত্যতা স্বীকারে করেছেন। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এর আগে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক লিপি মহাজন বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেন।

উল্লেখ্য, একই দিন সকালে স্কুলের ফটক খোলার সময়ে যৌন নিপীড়নের ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত নৈশ প্রহরী দীপক দে পলাতক ছিলেন। তিনি নগরীর ফইল্যাতলী এলাকার ননী গোপালের ছেলে। দীপক অস্থায়ীভাবে দৈনিক মজুরীতে নৈশ প্রহরী হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

২০১৩ সালে স্কুলে চুরির ঘটনায় তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছিল। দীপক দে কারাভোগের পর জামিনে বের হয়। দুই বছরের মাথায় ওই মামলায় আদালত থেকে খালাস পেয়ে সে ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে আবার নিয়োগ পায়।

জানা গেছে, স্কুল ভবনটিতে সকাল ৭-১১টা পর্যন্ত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠদান কার্যক্রম চলে। দুপুর বারোটা থেকে সিটি কর্পোরেশন পরিচালত মাধ্যমিক বিভাগের পাঠদান হয়। দীপক ভবনটির নৈশপ্রহরীর দায়িত্ব পালন করেন।

এফএম/এসএস

Loading...
আরও পড়ুন