জিইসি মোড়ে উবারে উঠেই নারী ছিনতাইকারী স্বরূপে

0

‘আমি গাড়ি নিয়ে উবার অ্যাপস চালু করে যাত্রীর অপেক্ষায় ছিলাম। নগরীর জিইসি মোড়ে অপেক্ষমাণ এক নারী বায়েজিদ রৌফাবাদ যাওয়ার জন্য ১০০ টাকা ভাড়ায় আমার বাইকে ওঠেন। রৌফাবাদে পৌঁছার পর টাকা ভাংতি করানোর কথা বলে ওই নারী গাড়ি থেকে নেমে কয়েকজন যুবকের সাথে কথা বলেন। একপর্যায়ে সেখানে আগে থেকে অবস্থান করা ৭-৮ জনের একদল যুবক আমার সামনে চলে আসে। ওই দলটি বলে— ‘তুমি এই মহিলাকে খারাপ উদ্দেশ্যে এখানে নিয়ে এসেছ’— বলেই সবাই মিলে আমাকে মারধর করতে শুরু করে। একপর্যায়ে সবাই টেনে হিঁচড়ে আমাকে একটি ঘরে নিয়ে যায়। এ সময় তারা জোর করে আমার পরনের কাপড় খুলে ভিডিও করতে থাকে। ওই ভিডিওটি ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে আমার গাড়িতে থাকা নগদ টাকা, ব্যাংকের এটিএম কার্ড, মোবাইল সেট হাতিয়ে নেয়।’

চট্টগ্রাম নগরীতে নারীকে ব্যবহার করে যাত্রীবেশে উবার চালককে আটকে রেখে নির্যাতনের পর সর্বস্ব হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনা ঘটেছে সংঘবদ্ধ একটি চক্রের হাতে। মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) বিকালে বায়েজিদ থানাধীন রৌফাবাদ এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার শিকার উবার চালক খোরশেদ আলম চৌধুরী বুধবার (৬ নভেম্বর) থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

খোরশেদ আরও বলেন, ‘এটিএম কার্ড নিয়ে ওই চক্রের কয়েকজন সদস্য এটিএম বুথে গিয়ে টাকা তোলার চেষ্টা করে। কিন্তু পিনকোড ভুল হওয়ায় কার্ড আটকে যায়। পরে তারা আমাকে আবারো মারধর করতে থাকে। এরপর খোরশেদের আত্মীয়স্বজনকে ফোন করে টাকা দাবি করে। সর্বশেষ রাত সাড়ে ১০টার দিকে খোরশেদের ব্যবহৃত মোবাইল রেখে দিয়ে তাকে ছেড়ে দেয় এবং ৫০ হাজার টাকা ঐ মোবাইলের বিকাশে পাঠাতে বলে।’

বায়েজিদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার আতাউর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘এ ঘটনায় হাসান নামের একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মামলার প্রক্রিয়া চলছে। বাকি অপরাধীদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে।’

ছাড়া পাওয়ার পর খোরশেদ বায়েজিদ থানায় এসে বিষয়টি ওসিকে জানানোর পর তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে হাসান নামে একজনকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

এফএম/এসএস

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন