চার বুলেটের চিহ্ন জনসংহতি কর্মীর নিথর শরীরে

রাঙামাটি

0

রাঙামাটিতে বিক্রম চাকমা ওরফে সুমন চাকমা (৩৪) নামের এক যুবককে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। রোববার (১ ডিসেম্বর) দুপুরে সদরের আসামবস্তি-কাপ্তাই সড়কের মগবান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাঙামাটি কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহেদুল হক রনি।

তিনি বলেন, ‘রোববার দুপুরে স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ বিক্রম চাকমার লাশ উদ্ধার করে। এ সময় ঘটনাস্থলে পাওয়া যায় চারটি গুলির খোসা। নিহতের শরীরে চারটি গুলির চিহ্ন রয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’

তবে কারা ও কি কারণে এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে পারেনি পুলিশ।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, রাঙামাটি সদর উপজেলার মগবান ইউনিয়নে মগবানবাজার এলাকার একটি বাড়িতে অবস্থান করছিলেন বিক্রম চাকমা। দুপুরের দিকে বিক্রম স্পিডবোট থেকে মগবানবাজারে নামার সঙ্গে সঙ্গে দৃর্বৃত্তরা তাকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এতে তার মাথা ও হাতে গুলি লাগে। পরে তারা বিক্রম চাকমার মৃত্যু নিশ্চিত হয়ে স্পিডবোট নিয়ে পালিয়ে যায়।

জানা গেছে, নিহত বিক্রম চাকমা পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) চাঁদা আদায়কারী। তিনি কাউখালী ও ঘাগড়া এলাকায় চাঁদা আদায়ের কাজ করতেন। কিন্তু নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানের মুখে নিজ এলাকা ছেড়ে রাঙামাটি শহরের রাঙ্গাপানি এলাকায় আত্মগোপণে চলে যান। কয়েক মাস আগে রাঙামাটির শীর্ষ চাঁদাবাজ জ্ঞান শংকর চাকমা নিহত হওয়ার পর তার স্থানে দায়িত্ব পান বিক্রম চাকমা। পরে তিনি চিফ কালেক্টর হিসেবে কাজ করছিলেন। তবে বিষয়টি নিয়ে জেএসএসের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায় নি।

এএইচ

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন