আক্রান্ত
১০৪৭৭
সুস্থ
১২৬৫
মৃত্যু
১৯৮

চট্টগ্রামে ১২ গার্মেন্টসে মে মাসের বেতন হয়নি, দিয়েছে ২৪০টি

0
high flow nasal cannula – mobile

চট্টগ্রামে বিজিএমইএ’র সদস্যভুক্ত ১২টি তৈরি পোশাক কারখানায় শ্রমিকদের মে মাসের বেতন হয়নি। জুনের শেষ হতে বাকি আর মাত্র তিন দিন। তবে চট্টগ্রাম অঞ্চলে বিজিএমইএভুক্ত ২৫২টি কারখানার মধ্যে ২৪০টিতেই বেতন পরিশোধ করা হয়েছে।

পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর দেওয়া সর্বশেষ তথ্যে দেখা যায়, সারা দেশে শ্রমিকদের মে মাসের বেতন পরিশোধ করেছে এক হাজার ৮৫৫টি পোশাক কারখানা। অন্যদিকে বেতন পরিশোধ করেনি ৭১টি কারখানা। এর মধ্যে ১২টি চট্টগ্রাম অঞ্চলের। এই ৭১টি কারখানায় গত এপ্রিল মাসেও শতভাগ বেতন পরিশোধ করা হয়নি।

বেশিরভাগ পোশাক কারখানাই এপ্রিলের পর মে মাসের বেতনও সরকারের দেওয়া ৫ হাজার কোটি টাকার স্বল্প সুদের ঋণ তহবিল থেকে দিয়েছে। জুন মাসের বেতনও একইভাবে দেওয়া হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গত মার্চে দেশে করোনাভাইরাসের সূচনাকালে বিজিএমইএর সদস্যভুক্ত পোশাক কারখানার সংখ্যা ছিল দুই হাজার ২৭৪টি। এর মধ্যে কারখানার সংখ্যা এক হাজার ৯২৬টিতে নেমে এসেছে। করোনাভাইরাস সংকট শুরুর পর ৩৪৮টি কারখানা বন্ধ হয়ে গেছে।

বিজিএমইএর তালিকা অনুসারে ঢাকা মহানগরীর ৩৩৩টি পোশাক কারখানার মধ্যে ৩১৪টি ইতোমধ্যে বেতন পরিশোধ করেছে, বাকি রয়েছে আরও ১৯টি। গাজীপুর অঞ্চলে ৭১৩টি কারখানার মধ্যে ৬৯৩টি বেতন দিয়েছে, বাকি রয়েছে ২০টি। সাভার-আশুলিয়া এলাকার ৪১২টি কারখানার মধ্যে ৩৯৭টি বেতন পরিশোধ করেছে, বাকি রয়েছে আরও ১৫টি। নারায়ণগঞ্জ এলাকায় ১৯৮টি কারখানার মধ্যে ১৯৬টিতে বেতন দেওয়া হয়েছে, বাকি রয়েছে আরও দুটি। এছাড়া অন্যান্য প্রত্যন্ত অঞ্চলের ১৮টি কারখানার মধ্যে ১৫টিতে বেতন পরিশোধ করা হয়েছে।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Manarat

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm