আক্রান্ত
১৮৩১৫
সুস্থ
১৪৬১৪
মৃত্যু
২৮৫

চট্টগ্রামে মৃত্যুহীন আরেকটি দিনে ১৪৯ করোনা পজিটিভ, সুস্থ ৬৫

0

চট্টগ্রামে তিন দিন পর আবারও করোনায় মৃত্যুহীন দিন পার হলো। তবে আগেরদিনের চেয়ে বেড়েছে করোনা শনাক্ত ও সুস্থতার সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৫ জনু সুস্থ হলেও নতুনভাবে আক্রান্ত হয়েছেন ১৪৯ জন। ফলে করোনাজয়ের সংখ্যা বেড়ে তিন হাজার ৩১০ জনে উন্নীত হওয়ার পাশাপাশি করোনা শনাক্ত এখন ১৫ হাজার ৪৯১ জন। যাদের মধ্যে ১০ হাজার ৮৯৯ জন নগরের এবং চার হাজার ৫৯২ জন উপজেলার বাসিন্দা। অন্যদিকে, করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা এখন ২৪৬। এর মধ্যে নগরে ১৭১ এবং উপজেলায় ৭৫ জন।

বুধবার (১২ আগস্ট) সকালে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, চট্টগ্রামের সরকারি তিনটি ও বেসরকারি দুটি ল্যাব এবং কক্সবাজারের একটি ল্যাব মিলে ৮২৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৪৯ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। যাদের মধ্যে নগরের ৯৬ জন এবং উপজেলার ৫৩ জন। একইসাথে গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে করোনা থেকে ৬৫ জন সুস্থ হয়েছেন এবং নতুনভাবে কেউ মারা যাননি।

গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামের প্রধান করোনা পরীক্ষাগার ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি)-তে বিদেশগামীদের বাধ্যতামূলক করানো করোনা টেস্টসহ দিনের সর্বাধিক ২১৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করোনা করা হয়। তাতে করোনা শনাক্ত হয় ৩২ জন। এর মধ্যে ২৮ জন নগরের বাসিন্দা ও ৪ জন বিভিন্ন উপজেলার।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ইউনিভার্সিটি (সিভাসু) ল্যাবে ১৩২টি নমুনা পরীক্ষা করে করোনা পজিটিভ হন মাত্র ৯ জন। এদের মধ্যে ৪ জন নগরের এবং বাকি ৫ জন উপজেলার।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় ১৬২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৬ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের জীবাণু পাওয়া যায়। যাদের মধ্যে নগরের ১৫ জন, বাকি ১১ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ১২৯ জনের করোনার পরীক্ষা হয়। তাতে দিনের সর্বোচ্চ ৩৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়। যাদের ৯ জন নগরের এবং ২৮ জন বিভিন্ন উপজেলার।

বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ১২০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৬ জনের দেহে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়। যাদের ২৪ জনই নগরের, বাকি ২ জন উপজেলার বাসিন্দা।

চট্টগ্রামের আরেকটি বেসরকারি পরীক্ষাগার শেভরণ ল্যাবে ৫৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করে করোনা শনাক্ত হয় ১৮ জনের দেহে। এদের মধ্যে ১৬ জন নগরের এবং ২ জন উপজেলার।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে উপজেলার ১ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়।

উপজেলা পর্যায়ে নতুনভাবে করোনা শনাক্ত ৫৩ জনের মধ্যে আবারও শীর্ষস্থানে উঠে এসেছে হাটহাজারী উপজেলা। সেখানে করোনা রোগী শনাক্ত হয় ১১ জন করে। পার্শ্ববর্তী ফটিকছড়িতে শনাক্ত হয় ১০ জন। এছাড়া রাউজানে ৮ জন, বোয়ালখালীতে ৬ জন, রাঙ্গুনিয়া ও সন্দ্বীপে ৪ জন করে, সীতাকুণ্ডে ৩ জন, আনোয়ারা, পটিয়া ও মিরসরাইয়ে ২ জন করে এবং বাঁশখালীতে ১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে।

এমএহক

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ManaratResponsive

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm