রাঙ্গুনিয়ার খুনের আসামি পলাতক ছিল আট বছর, র‍্যাবের হাতে ধরা পড়লো ফেনীতে

0

রাঙ্গুনিয়ায় মাহবুব হত্যা মামলার আসামি মো. জাশেদ মিয়া চৌধুরী (৪৭) র‍্যাবের হাতে আটক হয়েছে।

ঘটনার পর আট বছর পলাতক ছিলেন চার হত্যা মামলার এই আসামি। ২০১৪ সালের ১৬ নভেম্বর রাঙ্গুনিয়ায় এই হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়।

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুর দেড়টার দিকে তাকে ফেনীর মহিপাল এলাকা থেকে আটক করে র‍্যাব। জাশেদ রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পেয়ার মোহাম্মদ বাড়ির আব্দুল মান্নান চৌধুরীর ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে র‍্যাব-৭ চট্টগ্রামের সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘২০১৪ সালের ২১ নভেম্বর রাঙ্গুনিয়া উপজেলার ইসলামপুরে চায়ের দোকান থেকে মাহাবুব আলমকে দিনে-দুপুরে তুলে নিয়ে সন্ত্রাসীরা বেধড়ক পেটায়। তার মাথার পিছনে স্টিক দিয়ে জখম করার পর পায়ের গোড়ালী কেটে দেওয়া হয়। মৃত্যু নিশ্চিত করতে তার বুকে গুলিও করে সন্ত্রাসীরা।’

তিনি আরও জানান, ঘটনার পর মাহবুবের স্ত্রী রাঙ্গুনিয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। র‍্যাব জড়িতদের গ্রেফতার ও মামলার তদন্ত শুরু করে।

র‍্যাব বুধবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুরে জানতে পারে, এ মামলার অন্যতম আসামী জাশেদ মিয়া চৌধুরী ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে আসছে। এই তথ্যের ভিত্তিতে র‍্যাবের একটি দল ফেনীর মহিপালে যাত্রীবাহী বাস থেকে দুপুর দেড়টায় জাশেদকে আটক করে। র‍্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে জাশেদ নিজেকে মাহবুব হত্যা মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী বলে স্বীকার করে।

জিজ্ঞাসাবাদে র‍্যাবকে জাশেদ জানায়, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার, কাঠ ও বালু ব্যবসার বিরোধের জেরে পরিকল্পিত ভাবে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে ঠান্ডাছড়ি এলাকায় ছুরিকাঘাত ও গুলি করে হত্যা করা হয় মাহবুবকে।

জাশেদের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম জেলার রাঙ্গুনিয়া থানায় হত্যা মামলা ছাড়াও ডাকাতি, চাঁদাবাজি এবং সন্ত্রাসী কার্যক্রমসহ সর্বমোট চারটি মামলা রয়েছে। তাকে রাঙ্গুনিয়া থানায় হস্তান্তর করা হবে বলেও জানান র‍্যাব কর্মকর্তা মো. নুরুল আবছার।

আইএমই/এমএফও

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm