আক্রান্ত
১১৩৮৫
সুস্থ
১৩৪০
মৃত্যু
২১৪

চিকিৎসা চেয়ে ১৫ দিন ঘুরলেন হার্টের রোগী, শেষে এক ক্লিনিকে বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু

0
high flow nasal cannula – mobile

চট্টগ্রাম নগরীর পাঁচলাইশ থানার পিলখানা এলাকার রেজাউল করিম (৪৭) হার্টে রিং পরিয়েছেন অনেক আগে। এরপর থেকে নিয়মিত চেকআপ ও ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে চলতে হয় তাকে। তবে করোনার সময় চিকিৎসকদের ব্যক্তিগত চেম্বার বন্ধ থাকা ছাড়াও হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসাসেবা না পেয়ে জীবন ঝুঁকিতে পড়ে যান তিনি। ফুসফুসে পানি জমে গেলে ১৫ দিন ধরে চিকিৎসার জন্য নগরীর প্রায় সব বেসরকারি হাসপাতালের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন তিনি। হার্টের রোগী শুনে কোন হাসপাতাল তাকে চিকিৎসা দিতে রাজি হয়নি।

অনেক চেষ্টার পর গত (২৩ মে) তার স্বজনেরা তাকে কোন রকমে পাঁচলাইশ থানার একুশে ক্লিনিকে ভর্তি করেন। কিন্তু সেখানে কোন হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ নেই। অনেকটা বিনা চিকিৎসায় ধুঁকে ধুঁকে মৃত্যুর দুয়ারে পৌঁছে গেলেন রেজাউল।

তার স্বজনেরা জানান, অনেকটা চিকিৎসা ছাড়াই শনিবার (৩০ মে) সকাল ৭টায় মারা যান রেজাউল। আসরের নামাজের পর জানাজা শেষে তাকে পিলখানার পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

এ বিষয়ে মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রণি ক্ষোভ জানিয়ে চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘বেসরকারি হাসপাতালগুলো নতুন করে সরকারের কাছে প্রণোদনার বাহানা করেছে। তাদের ডাক্তার ও নার্সরাও বর্তমানে পেশাগত দায়িত্ব পালনের আগে সরকারকে ঝুঁকি ভাতার দাবি করছেন। অথচ তাদের অবহেলায় ঝরে গেল জীবন্ত একজন মানুষ।’

সিএম/এসএস

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Manarat

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm