মধ্যরাতে চবি ছাত্রলীগ নেতাকে যুবলীগ নেতার ‘মারধর’, ছাত্রলীগের অবরোধে ক্যাম্পাস অচল

0

মধ্যরাতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) শাখা ছাত্রলীগের ভিএক্স গ্রুপের দুই নেতাকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে মো. হানিফ নামের স্থানীয় এক যুবলীগ নেতা ও তার অনুসারীদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনার বিচারের দাবিতে মূল ফটকে তালা দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য অবরোধের ডাক দিয়েছে ভিএক্স গ্রুপ। ফলে ক্যাম্পাস থেকে কোন বাস ছেড়ে যায়নি। এছাড়া শহর থেকে কোন শাটল ট্রেন ছেড়ে আসেনি। এতে করে কার্যত অচল হয়ে পরে ক্যাম্পাস।

মঙ্গলবার (৩১ মে) রাত সাড়ে তিনটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক নম্বর গেইট এলাকায় ঘটনা ঘটে। মারধরের শিকার দুই ছাত্রলীগ নেতা হলেন প্রদীপ চক্রবর্তী দুর্জয় ও মো. রাশেদ। অন্যদিকে অভিযুক্ত মো. হানিফ স্থানীয় যুবলীগ নেতা।

ভিএক্স গ্রুপের নেতাকর্মীরা জানান, স্থানীয় যুবলীগ নেতা হানিফ ও তার অনুসারীরা আমাদের নেতার ওপর হামলা চালিয়েছে। হানিফকে ও তার দুই ভাইকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার করতে হবে। নাহলে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কিছু বন্ধ থাকবে।

তবে মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন যুবলীগ নেতা মো. হানিফ। তিনি চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘আমি ঘুমে ছিলাম। মারধরের বিষয়টি আপনাদের থেকে শুনতেছি।’

সরেজমিনে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের এক নম্বর ও দুই নম্বর গেইটে তালা দিয়ে অবস্থান নিয়েছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। বিভিন্ন সড়কে গাছের গুঁড়ি ফেলে ব্যারিক্যাড দেয়া হয়েছে। ক্যাম্পাসে কোন ধরনের যানবাহন চলতে দেয়া হচ্ছে না। শিক্ষার্থীরা পায়ে হেঁটে যাতায়াত করছেন।

Yakub Group

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহণ দপ্তরের প্রশাসক মোয়াজ্জেম হোসেন চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের অবরোধের কারনে ক্যাম্পাস থেকে শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কোন বাস ছেড়ে যায়নি।’

ষোলশহর রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার এস এম ফখরুল আলম চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের অবরোধের কারনে ট্রেন চলাচল বন্ধ আছে। কখন চালু হয় বলা যাচ্ছে না।’

এ বিষয়ে জানতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভূইয়াকে মুঠোফোনে কল দিলে তিনি কল রিসিভ করেননি।

এমআইটি/এমএহক

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm