ফেসবুক আইডি হ্যাক করে টাকা হাতানোই এই স্বামী-স্ত্রীর ‘পেশা’

চট্টগ্রামের গৃহবধূর অভিযোগে দুই প্রতারক হবিগঞ্জ থেকে ধরা

0

স্বামী-স্ত্রী মিলে হ্যাক করেন ফেসবুকের আইডি। এরপর সেই আইডির মেসেঞ্জার থেকে থেকে তথ্য ও ছবি হাতিয়ে নিয়ে ওই ব্যক্তির কাছ থেকে টাকা দাবি করেন। শুধু এই দুজনই নন, তাদের সঙ্গে জড়িত আরও কয়েকজন। সবমিলিয়ে একটি চক্র।

এমন একটি ঘটনার তদন্ত করতে গিয়ে চট্টগ্রাম নগর পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের হাতে ধরা পড়ল স্বামী-স্ত্রী দুজনেই। তারা হলেন স্বামী আসাদুজ্জামান পলাশ (২১) ও স্ত্রী সাদিয়া সরকার (২১)।

শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) চট্টগ্রাম নগরীর হালিশহর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা একটি মামলার তদন্ত করতে গিয়ে হবিগঞ্জ জেলা সদরে অভিযান চালিয়ে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট তাদের গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তার করার সময়ই পলাশের কাছ থেকে উদ্ধার করা মোবাইলে বিভিন্ন নামে লগইন করা ৪৭টি ফেসবুক আইডি পাওয়া গেছে। অন্যদিকে ফেসবুক মেসেঞ্জারের ১৭টি আইডিও পাওয়া গেছে— যা লগইন করা অবস্থায় ছিল।

পলাশের বাড়ি হবিগঞ্জে। তিনি ২০১৭ সালে ঢাকার একটি কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষার্থী ছিলেন। তবে শেষপর্যন্ত পরীক্ষা আর দেননি। অন্যদিকে তার স্ত্রী সাদিয়া ঢাকার একটি কলেজে অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। মাসতিনেক আগে তারা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন।

Yakub Group

জানা গেছে, গত ২৬ নভেম্বর এক গৃহবধূর ছোট বোনের ফেইসবুক আইডি হ্যাকড হয়। এরপর তিনি ওই আইডি ফিরে পাওয়ার জন্য ফেসবুকে বিভিন্ন উপায় খুঁজতে গিয়ে একটি পেইজের সন্ধান পান। ওই পেইজে আইডি ফিরে পাওয়ার নিশ্চয়তা দেওয়া হয় তাকে। এরপর তানজিলা আক্তার তুলি নামের এক নারী ভুক্তভোগী গৃহবধূকে ফোন করে এক হাজার ৪০০ টাকা পাঠাতে একটি বিকাশ নম্বর দেন।

বিকাশে টাকা যাওয়ার পর তানজিলা আক্তার তুলি নামের ওই নারী ফেসবুক আইডি হারানো গৃহবধূর মেসেঞ্জারে ফোন করে পাঁচ মিনিটে আইডি ঠিক করে দেওয়ার আশ্বাস দেন। এরপর তুলি নামের ওই নারী একটি লিঙ্ক পাঠিয়ে ফেসবুকের পাসওয়ার্ডটি পাঠানোর জন্য বলে। ওই গৃহবধূ পাসওয়ার্ড পাঠানোর পর তার আইডি লগআউট করে দেয়। এটা দেখে গৃহবধূ ওই ম্যাসেঞ্জারে ফোন করলে এক পুরুষ সেটি রিসিভ করে। এরপর থেকে মেসেঞ্জারের ভিডিও কলে অশ্লীল প্রস্তাব পাঠানো শুরু করে ওই পুরুষ।

এর একপর্যায়ে ফেসবুকের মেসেঞ্জারে থাকা ওই গৃহবধূ এবং তার প্রবাসী স্বামীর বিভিন্ন ছবি নিয়ে ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার কথা বলে টাকা দাবি করে হ্যাকাররা। গৃহবধূর প্রবাসী স্বামী হ্যাকারদের কিছু টাকা পরিশোধ করলেও তাতে হ্যাকাররা আরও বড় অংকের টাকা দাবি করতে থাকে। এমনকি ওই গৃহবধূ ও তার স্বামীর আত্মীয়স্বজনদের কাছেও তাদের ছবি পাঠানো শুরু করে।

কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের অনুসন্ধানে জানা যায়, আইডি হ্যাক করার মূল কাজটি পলাশই করেন। তাকে সহায়তা দেন স্ত্রী সাদিয়া সরকার। তানজিলা আক্তার তুলি নামের মেয়েটি আসলে সাদিয়া সরকার নিজেই।

শনিবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুরে দামপাড়ায় চট্টগ্রাম নগর পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ফেসবুক আইডি হ্যাক করে আইডির মালিককে ব্ল্যাকমেইল করে টাকা আদায় করা স্বামী-স্ত্রীকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের উপ-কমিশনার মো. হামিদুল আলম জানান, ‘হালিশহরের এক ভুক্তভোগীর কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে প্রযুক্তির সহায়তায় হবিগঞ্জ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। একপর্যায়ে ফেসবুক আইডি হ্যাকের সাথে জড়িত দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।’

তিনি বলেন, ‘তারা ওই ভুক্তভোগীর আইডি প্রথমে কৌশলে হ্যাক করে, পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেন এবং টাকা দাবি করেন। প্রস্তাবে সাড়া না দিলে এক পর্যায়ে ভুক্তভোগীর ব্যক্তিগত মুহুর্তের ছবি ও ভিডিও ভুক্তভোগীর বিভিন্ন বন্ধু ও নিকট আত্মীয়দের কাছে পাঠিয়ে দেন।’

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm