s alam cement
আক্রান্ত
১০২৪১৫
সুস্থ
৮৬৮৫৬
মৃত্যু
১৩৩১

চট্টগ্রামে ‘হঠাৎ কমলো’ করোনার তাণ্ডব, ৮ মৃত্যু সাথে নিয়ে ৯২৮ শনাক্ত

0

চট্টগ্রামে একটানা তাণ্ডব চালানোর পর হঠাৎ করে ‘কমে গেল’ করোনা শনাক্ত ও মৃত্যু। গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে করোনা শনাক্ত কমে দাঁড়িয়েছে ৯২৮ জনে। একই সময়ে করোনা কেড়ে নিয়েছে আও ৮ জনের প্রাণ।

এই নিয়ে চট্টগ্রামে শনাক্তের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াল ৮৯ হাজার ৫৮৮ জনে। এদের মধ্যে নগরের ৬৬ হাজার ৩৭৫ জন এবং ২৩ হাজার ২১৩ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। অন্যদিকে, করোনায় মৃত্যু বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৪৪ জনে। এদের মধ্যে ৬১১ জন নগরের এবং ৪৩৩ জন উপজেলার বাসিন্দা।

শনিবার (৭ আগস্ট) সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়। তথ্য অনুযায়ী, এইদিন চট্টগ্রামের সরকারি-বেসরকারি ৮টি, কক্সবাজারের ১টি ল্যাব ও বিভিন্ন ল্যাবে এন্টিজেন টেস্টসহ ২ হাজার ৭২৪ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়। তাতে ৯২৮ জন নতুনভাবে আক্রান্ত হন। এর মধ্যে নগরের ৫৬৩ জন এবং উপজেলার ৩৬৫ জন।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ৪২৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৯৭ জনকে করোনার জীবাণুবাহক হিসেবে শনাক্ত করা হয়। এদের মধ্যে ৫৫ জন নগরের এবং ১৪২ জন বিভিন্ন উপজেলার।

বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ৫৯৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে শনাক্ত হয় ১৬২ জন। এদের ৯২ জন নগরের, ৭০ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ২৩৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৬৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়। যাদের ৪৬ জনই নগরের, বাকি ১৮ জন বিভিন্ন উপজেলার।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাবে ২৩৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৬৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়। যাদের মধ্যে ৪৬ জন নগরের এবং ১৮ জন উপজেলার বাসিন্দা।

চট্টগ্রামের বিভিন্ন ল্যাবে ১১৯ জনের নমুনা এন্টিজেন টেস্ট করা হয়। তাতে ২২ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এদের মধ্যে ১৮ জন নগরের এবং ৪ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ৯৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে উপজেলার ১০ জনকে করোনারোগী হিসেবে শনাক্ত করা হয়।

এছাড়া বেসরকারি ল্যাবগুলোর মধ্যে ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাব ১৯০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৬৭ জনের করোনা পজিটিভ আসে। এদের ৬০ জন নগরের, ৭ জন উপজেলার।

শেভরণ ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরিতে ২৩৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৬২ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এদের মধ্যে ৫৫ জন নগরের এবং ৭ জন উপজেলার বাসিন্দা।

চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে ১২৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪৪ জনের দেহে ভাইরাসটির উপস্থিতি পাওয়া গেছে। এদের ৪০ জনই নগরের, বাকি ৪ জন উপজেলার।

জেনারেল হাসপাতালের রিজিওনাল টিবি রেফারেল ল্যাবরেটরিতে (আরটিআরএল) গত ২৪ ঘণ্টায় কোন নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল সেন্টার ল্যাবে ৪৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নগরের ১৯ জন ও উপজেলার ৩ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়।

ইপিক হেলথ কেয়ার ল্যাব ১৩৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নগরের ৫৩ জন ও উপজেলার ৭ জনের শরীরে করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে।

উপজেলায় শনাক্ত ৩৬৫ জনের মধ্যে হাটহাজারী উপজেলাতেই শনাক্ত হয় ৯৯ জন রোগী। এছাড়া রাউজানে ৬৮ জন, বোয়ালখালীতে ৬০ জন, ফটিকছড়িতে ৩৮ জন, পটিয়ায় ৩০ জন, বাঁশখালীতে ১০ জন, আনোয়ারায় ৭ জন, সাতকানিয়ায় ৬ জন, চন্দনাইশে ৫ জন, মিরসরাইয়ে ৪ জন, লোহাগাড়া ও রাঙ্গুনিয়ায় ২ জন করে এবং সন্দ্বীপে ১ জন করোনা পজিটিভ পাওয়া যায়।

এমএহক

ManaratResponsive

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm