চট্টগ্রামে ছাত্রকে পিটিয়ে জখম প্রধান শিক্ষকের, থানায় অভিযোগ বাবার

নগরীর একটি স্কুলের প্রধান শিক্ষকের কাছে শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন সপ্তম শ্রেণীর এক ছাত্র। আর ছেলেকে নির্যাতন করায় প্রতিকার চেয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন ভুক্তভোগী ছাত্রের বাবা।

ছাত্রের বাবার দাবি, বিনা কারণেই ছেলেকে মুখ ও ঘাড়ে আঘাত করে আহত করেছেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক। যদিও প্রধান শিক্ষকের দাবি, তিনি কিল ঘুষি না, দুইটা থাপ্পর মেরেছেন।

ঘটনাটি ঘটে মঙ্গলবার (১০ অক্টোবর) বিকালে। আর ঘটনার দিনই ছাত্রের বাবা মো. আবুল হোসেন বাদি হয়ে নগরীর কোতোয়ালী থানায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি করেন।

অভিযুক্ত মো. শরীফুল ইসলাম পলোগ্রাউন্ড এলাকার রেলওয়ে পাবলিক হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক। আর ভুক্তভোগী ছাত্র নাফিজ হোসেন একই স্কুলের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র।

সাধারণ ডায়েরিতে উল্লেখ করা হয়, মঙ্গলবার স্কুলের প্রধান শিক্ষক ছেলে নাফিজকে স্কুলের নিচতলার ১০৩ নম্বর রুমে চড় থাপ্পড় মারতে থাকে। মারার কারণ জিজ্ঞেস করলে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক রুম থেকে বের করে সিঁড়ির সামনে আবারও কিল-ঘুষি মারতে মারতে অপর ভবনে থাকা প্রধান শিক্ষকের রুমে নিয়ে যায়।

ছাত্রের বাবা আরও উল্লেখ করেন, প্রধান শিক্ষকের রুমেও ছেলেকে নির্যাতন করা হয়। এমনকি এই ঘটনা বাইরে কাউকে বললে টিসি (ট্রান্সফার সার্টিফিকেট) দিয়ে স্কুল থেকে বের করে দিবে।

ছাত্র নির্যাতনের বিষয়ে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক মো.শরীফুল ইসলাম বলেন, কিল-ঘুষি না আমি স্রেফ দুইটা থাপ্পড় মেরেছি।

থাপ্পড়ের কারণ দেখিয়ে তিনি বলেন, ছেলেটা ক্লাসে গন্ডগোল করছিলো। ক্লাসের অন্য শিক্ষার্থীদের বেল্ট দিয়ে মেরেছিলো। তাই শাসন করতে আমার রুমে এনে দুইটা থাপ্পড় মেরেছি।

তবে এ বিষয়ে কোনো ধরনের সংবাদ প্রকাশ না করতে অনুরোধ করেন ভুক্তভোগী ছাত্রের বাবা ও অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক দু’জনেই।

সংবাদ প্রকাশের জন্য অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককে ফোন করা হলে তিনি বিষয়টা ছাত্রের বাবার সাথে বসে মিমাংসা করছেন বলে জানিয়ে ফোনটা ছাত্রের বাবাকে দেন।

ছাত্রের বাবা এই প্রতিবেদককে জানান, বিষয়টি ভুল বুঝাবুঝির। বিষয়টা মিমাংসা করা হচ্ছে।

থানায় করা সাধারণ ডায়েরিতে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে যে সকল অভিযোগ উল্লেখ করা হয়েছে তা মিথ্যা কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, না মিথ্যা না, প্রধান শিক্ষক আমার বন্ধু মানুষ। আমি মীমাংসা করছি। প্লিজ আপনি নিউজ করিয়েন না।

বিএস/এমএফও

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!