চট্টগ্রামে প্রাথমিক শিক্ষকের ৬০০ পদে পরীক্ষার্থী এক লাখ!

0

দেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা চার ধাপে শুরু হবে আগামী ২৪ মে। এর মধ্যে চট্টগ্রামে ১৪ জুন তৃতীয় ধাপে এবং ২১ জুন চতুর্থ ও শেষ ধাপে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

চট্টগ্রামে প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক পদে প্রতি আসনে ১৬১ জন লড়াই করবে। প্রায় ৬০০ পদের বিপরীতে লড়াই করবে ৯৮ হাজার ৯৬৯ জন। শিক্ষা অধিদপ্তর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে।

চট্টগ্রামে ১৪ জুন তৃতীয় ধাপে পরীক্ষা হবে ডবলমুরিং, পাহাড়তলী, বন্দর, পাঁচলাইশ, চান্দগাঁও, কোতোয়ালী, বাশঁখালী, রাউজান, সন্দ্বীপ, ফটিকছড়ি, আনোয়ারা ও লোহাগাড়া উপজেলায়।

আর ২১ জুন চতুর্থ ও শেষ ধাপে পরীক্ষা হবে পটিয়া, বোয়ালখালী, চন্দনাইশ, হাটহাজারী, রাঙ্গুনিয়া, মিরসরাই, সীতাকুন্ড ও সাতকানিয়া উপজেলায়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ ২০১৮-এর লিখিত পরীক্ষা চার ধাপে পর্যায়ক্রম ২৪ মে, ৩১ মে, ১৪ জুন ও ২১ জুন (শুক্রবার) সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে ১৭ মে থেকে চার দফায় পরীক্ষা আয়োজনের কথা জানানো হয়েছিল। ওই দিন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা থাকায় এই পরীক্ষা পেছানো হয়েছে বলে সূত্র জানিয়েছে।

চট্টগ্রাম জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নাসরিন সুলতানা চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে জানান, চট্টগ্রামে পরীক্ষার্থী বেশি হওয়ায় দুই ধাপে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্টিত হচ্ছে।

চট্টগ্রাম জেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার নুর মোহাম্মদ জানান, চট্টগ্রামের নগর এবং জেলায় মোট ২ হাজার ২৬৯টি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানে সহকারী শিক্ষকের শূন্যপদ ৬০০টি। এ পদের জন্য শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ৫৩টি পরীক্ষা কেন্দ্রে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের তথ্যমতে, গত বছরের ১ আগস্ট থেকে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত অনলাইনে ২৪ লাখের বেশি আবেদন জমা পড়েছে। ১২ হাজার পদের বিপরীতে এসব আবেদন জমা পড়ে। প্রতিটি পদের জন্য লড়াই করবে ২০০ জন। নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন করা হবে ডিজিটাল পদ্ধতিতে। এতে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হবে।

Loading...
আরও পড়ুন