ইপিজেড এলাকায় জেলা প্রশাসনের অভিযানে চার প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

লাইসেন্সবিহীন, অনুমোদনের অধিক সংখ্যক সংরক্ষণ ও আবাসিক ভবনে এলপি গ্যাস ব্যবসা

0

নগরীর ইপিজেড থানাধীন সিমেন্ট ক্রসিং রোড এলাকায় আইন ভঙ্গ করে আবাসিক ভবনে এলপি গ্যাস সিলিন্ডারের ব্যবসা পরিচালনার দায়ে নিউ রূপালী ট্রেডিংসহ পাঁচ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এ সময় নিউ রূপালী ট্রেডিং-এ অভিযান চালিয়ে অনুমোদনের চেয়ে বেশি এলপি গ্যাস সিলিন্ডার সংরক্ষণ ও বিক্রির অপরাধে দশ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। মঙ্গলবার (১১ মে) দুপুরে পরিচালিত অভিযানে প্রতিষ্ঠানটিকে আবাসিক এলাকা হতে সরে গিয়ে অন্যত্র ব্যবসায় পরিচালনার জন্য দশদিন সময় বেঁধে দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আলী হাসান।

মো. আলী হাসান চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন,‘একটি চারতলা ভবনের নিচতলায় মেয়াদোত্তীর্ণ ও খালি গ্যাস সিলিন্ডার সংরক্ষণ করছিল প্রতিষ্ঠানটি। বিস্ফোরক আইন অনুযায়ী আবাসিক ভবনে গ্যাস সিলিন্ডার সংরক্ষণ অপরাধ। প্রতিষ্ঠানটিতে দেখা যায়, লাইসেন্সে ৪০টি (৫০০ কেজি) এলপি গ্যাস সংরক্ষণ ও বিক্রির বিষয়ে নির্দেশনা থাকলেও প্রতিষ্ঠানটি অনুমোদনের চেয়ে বেশি প্রায় ২৫০ এলপি গ্যাসের সিলিন্ডার সংরক্ষণ করেছিল। এই অপরাধে তাদেরকে জরিমানা ও লাইসেন্সে অনুমোদন ৪০ ( ৫০০ কেজি) গ্যাসের সিলিন্ডার সংরক্ষণ ও বিক্রির নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’

এদিকে একই অভিযানে লাইসেন্স না পেয়ে এলপি গ্যাসের ব্যবসা পরিচালনার অপরাধে ফাহাদ এন্টারপ্রাইজকে পাঁচ হাজার টাকা, মালেক শাহ স্টোরকে দুই হাজার টাকা, অনুমোদনতিরিক্ত প্রায় ১৫০ এলপি গ্যাসের সিলিন্ডার সংরক্ষণ ও বিক্রি করার অপরাধে খাজা ট্রেডার্সকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযানে বিস্ফোরক পরিদপ্তরের সহকারী বিস্ফোরক পরিদর্শক মুহাম্মদ মেহেদি ইসলাম খানসহ চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) সদস্যরা অংশ নেন।

এমএ/এসএস

Loading...
আরও পড়ুন