বিজেপিতে যোগ দিয়েই ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ পড়লেন বড় প্রশ্নের মুখে

0

রীতিমতো মঞ্চ বেঁধে যোগদানের কর্মসূচি পালিত হল ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপির সদর দফতরে। বুধবার (৫ জুন) বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ দলীয় পতাকা তুলে দিলেন ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ খ্যাত নায়িকা অঞ্জু ঘোষের হাতে। বাংলাদেশের একসময়কার খ্যাতিমান এই অভিনেত্রী গত বছরও ঢাকায় এসে সিনেমায় আবার অভিনয় করার আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন সাংবাদিকদের কাছে। যদিও দুই দশক আগেই বাংলাদেশ থেকে পাকাপাকিভাবে ভারতে চলে গিয়েছিলেন অঞ্জু। তখন থেকেই তিনি ভারতীয় নাগরিক।

একদা বাংলাদেশের জনপ্রিয় এই নায়িকার বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‘উনি বহু দিন ধরেই যোগ দেওয়ার কথা বলছিলেন। আজ তা সম্ভব হল।’’

নাগরিকত্ব নিয়ে বড়সড় প্রশ্ন
অঞ্জু ঘোষের বিজেপিতে যোগদানের পর শুরু হয়েছে আরেক বিতর্ক। তার নাগরিকত্ব নিয়ে উঠেছে বড়সড় প্রশ্ন। অঞ্জু ঘোষ দাবি করেছেন, তিনি ভারতীয় নাগরিক। তবে অন্য তথ্য দিচ্ছে উইকিপিডিয়া।

ভোটের প্রচারে বাংলাদেশি অভিনেতাদের ব্যবহার করেছিল তৃণমূল। ফেরদৌস ও আবদুন গাজী নুরকে দেখা গিয়েছিল তৃণমূলের প্রচারে। বিষয়টি নিয়ে শোরগোল করেছিল বিজেপি। এরপর দুই অভিনেতাকে দেশ ছাড়ার নির্দেশ দেয় ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। সেই বিতর্কই এবার বিজেপিতে অঞ্জু ঘোষের যোগদান ঘিরে। অঞ্জুর হাতে দলীয় পতাকা দিয়ে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দাবি করেছেন, অরিজিনাল ‘বেদের মেয়ে জোৎস্না’ দলে এলেন। কলকাতার সল্টলেকে তাঁর বাড়ির পাশে থাকেন অভিনেত্রী।

অঞ্জু ঘোষ জন্মসূত্রে বাংলাদেশি নাগরিক। ১৯৮৯ সালে বাংলাদেশে মুক্তি পেয়েছিল তাঁর ছবি ‘বেদের মেয়ে জোৎস্না’। ওই ছবিটি ব্যাপক সাফল্য পায় বাংলাদেশে। এখনও পর্যন্ত বক্সঅফিসের সবচেয়ে সফল বাংলা ছবি এটিই। ১৯৯১ সালে করকাতায় ‘বেদের মেয়ে জোৎস্না’র রিমেক মুক্তি পায়। ওই ছবিতেও মূল ভূমিকায় ছিলেন অঞ্জু ঘোষ। এরপর থেকে কলকাতাতেই থেকে যান এই অভিনেত্রী। কলকাতায় থাকলেও অঞ্জুর নাগরিকত্ব নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। অঞ্জু ঘোষের দাবি, ভারতীয় নাগরিককে বিয়ে করেছেন তিনি। বিবাহসূত্রে ভারতীয় নাগরিকত্ব পেয়েছেন।

উইকিপিডিয়া অবশ্য অন্য তথ্য দিচ্ছে। উইকিপিডিয়া এখনও বলছে, অঞ্জু ঘোষ বাংলাদেশি নাগরিক। বাংলাদেশের ফরিদপুরে জন্ম হয়েছিল তাঁর। যদিও উইকিপিডিয়াকে প্রামাণ্য দলিল হিসেবে ধরা যায় না। বিতর্ক তবু রয়েই গেল।

Loading...
আরও পড়ুন