শৃঙ্খলা পরিপন্থী আচরণ, পদ হারালেন দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল সভাপতি

0

শৃঙ্খলা পরিপন্থী কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকায় জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা সভাপতি সাইফুদ্দীন সালাম মিঠুর পদ স্থগিত করেছে কেন্দ্রীয় কমিটি। শুক্রবার (২৬ নভেম্বর) স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি সাইফুদ্দীন সালাম মিঠু সংগঠনের শৃঙ্খলা পরিপন্থী কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার কারণে তার সভাপতির পদ সাময়িক ভাবে স্থগিত করা হয়েছে।

জানা যায়, এর আগে গত ১৩ নভেম্বর স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েলের নির্দেশক্রমে সংগঠনের শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছিল।

এ ব্যাপারে সাইফুদ্দীন সালাম মিঠু বলেন, আমরা তো দল করি। দল করতে গিয়ে আচার আচরণ, চলা ফেরায় ভুলত্রুটি হতে পারে। আমার ব্যাপারে দল যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা আমি মাথা পেতে নিলাম।

এ সুযোগে আমি আমার ভুলত্রুটি গুলো শুধরে নিতে পারব। আমি আশা করছি দল আবারো আমার স্থগিত হওয়া সভাপতির পদ দ্রুততম সময়ের মধ্যে ফিরিয়ে দিবেন।

এক প্রশ্নের জবাবে মিঠু বলেন, আমাকে দল ১৩ নভেম্বর কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছিল। আমি ২৩ নভেম্বর জবাব দিয়েছি। আমি দলের কর্মী বিগত দিনে দলের আন্দোলন সংগ্রামে ছিলাম এখনো আছি। কেন্দ্রীয় কমিটি আমার বিরুদ্ধে যে ব্যবস্থা নিয়েছেন তা আমার রাজনৈতিক ভবিষ্যতের জন্য ভালো হবে। তার থেকে আমি শিক্ষা নিয়ে আমার রাজনৈতিক পথচলা আরও মসৃণ হবে।

স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম জানান, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি সাইফুদ্দীন সালাম মিঠুর বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে বিভিন্ন অভিযোগ এসেছে। তিনি সংগঠনের শৃঙ্খলা পরিপন্থী কাজে লিপ্ত ছিলেন।

তাকে আমরা কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছিলাম। কিন্তু তার নোটিশের জবাবটি সন্তোষজনক না হওয়ায় কেন্দ্রীয় কমিটি তার সভাপতির পদটি সাময়িকভাবে স্থগিত করেছেন।

রফিকুল ইসলাম জানান, মিঠুর বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো কেন্দ্রীয় কমিটির গঠিত তদন্ত টিম কাজ করছেন। যদি অভিযোগ প্রমাণিত হয় তাকে স্থায়ীভাবে সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে নেয়া হবে। আর যদি আনিত অভিযোগগুলো প্রমাণিত না হয় তাহলে তাকে সভাপতির পদ ফিরিয়ে দেয়া হবে বলে জানান তিনি।

কেএস

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm