৭৩ কন্টেইনার পণ্যচালান ধ্বংস করবে চট্টগ্রাম কাস্টমস

এবার ৭৩ কন্টেইনার পণ্যচালান ধ্বংস করবে চট্টগ্রাম কাস্টমস। এর মধ্যে রয়েছে মাছ, মাংস, খেজুর, আদা, সুপারি, ক্যারোলা বীজ, মাছের খাবারসহ মোট ১৫ লট পঁচনশীল পণ্য।

সোমবার (১৪ নভেম্বর) থেকে এসব পণ্য ধ্বংস কার্যক্রম শুরু হবে।

চট্টগ্রাম কাস্টমস সূত্র জানিয়েছে, এসব পণ্যচালান ধ্বংসের জন্য জেলা প্রশাসন, পুলিশ বিভাগ, চট্টগ্রাম বন্দর, পরিবেশ অধিদফতর, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের একজন করে প্রতিনিধিকে নিয়ে ৯ সদস্যের কমিটি করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম নগরীর হালিশহরের আনন্দবাজারে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ডাম্পিং স্টেশনের পাশের একটি খালি জায়গাকে এসব পণ্য ধ্বংসের স্থান হিসেবে অনুমোদন দেয় পরিবেশ অধিদপ্তর।

চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস আরও জানায়, নিলাম অযোগ্য ও মেয়াদোত্তীর্ণ এসব পণ্য ধ্বংসের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। দৈনিক ২৫ থেকে ৩০ কন্টেইনার পণ্য ধ্বংস করা হবে। পর্যায়ক্রমে ৭৩টি কন্টেইনার পণ্য পরিবেশসম্মত উপায়ে ধ্বংস করা হচ্ছে ।

চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসের ডেপুটি কমিশনার প্রিভেন্টিভ মো. মাহফুজ আলম বলেন, ‘এবার ৭৩টি কন্টেইনার ধ্বংসের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১২টি কন্টেইনার রয়েছে বন্দরে, ৬১টি কন্টেইনার রয়েছে অফডকে।’

Yakub Group

তিনি আরও বলেন, ‘মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য ধ্বংসের জন্য চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসের নিজস্ব কোনও জায়গা নেই। এ কারণে সিটি করপোরেশনের ময়লার ডাম্পিং স্পেসের পাশের পাঁচ একর জায়গায় এসব পণ্য ধ্বংস করা হবে। ওই জায়গা খুঁড়ে পচে যাওয়া পণ্য ফেলার সঙ্গে সঙ্গে মাটিচাপা দেওয়া হবে। এ কারণে কোনও দুর্গন্ধ ছড়াবে না।’

এএস/ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm