আক্রান্ত
১৪৪৫০
সুস্থ
২৩৩১
মৃত্যু
২৩৩

৭দিন পর আবারও ৩ হাজারের বেশি শনাক্ত, মৃত্যু আরও ৩৫

0

সর্বশেষ গত ২১ জুলাই দেশে করোনাভাইরাস শনাক্ত তিন হাজারের ওপরে ছিল। ২২ জুলাই থেকে ২৮ জুলাই পর্যন্ত শনাক্ত ছিল তিনহাজারের নিচে। সাত দিন পর গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে নতুনভাবে শনাক্ত হয়েছেন তিন হাজারের বেশি, তিন হাজার নয়জন। এ নিয়ে আক্রান্ত শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়াল দুই লাখ ৩২ হাজার ১৯৪ জন। একইসময়ে করোনাভাইরাসে আরো ৩৫ জনের ‍মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল তিন হাজার ৩৫ জনে। অন্যদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন আরও দুই হাজার ৮৭৮ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল এক লাখ ৩০ হাজার ২৯২ জনে।

আগেরদিন করোনাভাইরাসে ৩৫ জন প্রাণ হারিয়েছিলেন। ১২ হাজার ৭১৪টি নমুনা পরীক্ষায় করোনা পাওয়া যায় আরও দুই হাজার ৯৬০ জনের দেহে। সে হিসাবে আগের ২৪ ঘণ্টার তুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু সমানসংখ্যক হলেও বেড়েছে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা। দেশে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড আছে ৬৪ জনের। সে তথ্য জানানো হয়, ৩০ জুনের বুলেটিনে। সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড চার হাজার ১৯ জনের, যা জানানো হয় ২ জুলাইয়ের বুলেটিনে।

বুধবার (২৯ জুলাই) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাভাইরাস বিষয়ক দৈনন্দিন বুলেটিনে এ তথ্য তুলে ধরেন অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

তিনি নতুন সংযুক্ত একটিসহ ৮২টি পিসিআর-ল্যাবরেটরিতে নমুনা পরীক্ষার তথ্য তুলে ধরে জানান, করোনাভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪ হাজার ২৫৩টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ১৪ হাজার ১২৭টি নমুনা। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো ১১ লাখ ৫১ হাজার ২৫৮টি। নতুন পরীক্ষায় করোনা মিলেছে তিন হাজার নয়জনের মধ্যে। এ নিয়ে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল দুই লাখ ৩২ হাজার ১৯৪ জনে। আক্রান্তদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে আরও ৩৫ জনের। ফলে ভাইরাসটিতে মোট মারা গেলেন তিন হাজার ৩৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও দুই হাজার ৮৭৮ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল এক লাখ ৩০ হাজার ২৯২ জনে।

গত ২৪ ঘণ্টায় যাদের মৃত্যু হয়েছে তাদের পুরুষ ৩০ জন এবং নারী পাঁচজন। এদের মধ্যে ২০ বছরের বেশি বয়সী একজন, ত্রিশোর্ধ্ব একজন, চল্লিশোর্ধ্ব ছয়জন, পঞ্চাশোর্ধ্ব সাতজন, ষাটোর্ধ্ব ১২ জন, সত্তরোর্ধ্ব সাতজন এবং ৮০ বছরের বেশি বয়সী একজন ছিলেন। ঢাকা বিভাগের ছিলেন ১৪ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের আটজন, বরিশাল বিভাগের চারজন, খুলনা, সিলেট, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগের দুইজন করে এবং রংপুর বিভাগের ছিলেন একজন।

বুধবারের বুলেটিনে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ৩০ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার ২০ দশমিক ১৭ শতাংশ। আর রোগী শনাক্ত তুলনায় সুস্থতার হার ৫৬ দশমিক ১১ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩১ শতাংশ।

অন্যদিকে, চট্টগ্রাম জেলায় করোনা শনাক্ত এখন ১৪ হাজার ৯৩ জন। যাদের মধ্যে নয় হাজার ৮৫৫ জন নগরের ও চার হাজার ২৩৮ জন বিভিন্ন উপজেলার। এখন পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন মোট ২২৯ জন, যাদের ১৬১ জন নগরের ও ৬৮ জন উপজেলার। অন্যদিকে, গত ২৪ ঘন্টায় চট্টগ্রামে আরও ৬৮ জন সুস্থ হওয়ায় এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন দুই হাজার ১১২ জন করোনা রোগী।

এমএহক

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ManaratResponsive

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm