৩০ বছর পর মিরসরাইয়ের ইমরান হত্যা মামলার রায়, ৩ জনের আমৃত্যু কারাদণ্ড

৯ আসামিকে ৩০ বছরের যাবজ্জীবন

৩০ বছর পর চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের মো. সাইফুদ্দিন ইমরান হত্যা মামলায় তিনজনকে আমৃত্যু কারাদণ্ডসহ ১২ আসামিকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দিয়েছেন আদালত। মৃত্যুবরণ করায় অব্যাহতি পেয়েছেন একজন।

বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম ১ম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ড. আবুল হাসানাতের আদালতে এই রায় ঘোষণা করেন।

আমৃত্যু দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন শফিউল আলম, সাহাবুদ্দিন ও আমির হামজা।

বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন কবির আহমেদ, দিদারুল আলম মিলন, আবু আবদুল্লাহ কিরন, সিদ্দিক আহমদ, রুহুল আমিন, হুমায়ুন কবির ওরফে কবির আহমদ, আরিফ হোসেন আরিফ, আনোয়ারুল আজিম এবং জয়নাল আবেদীন। বিচার চলাকালীন সময়ে অভিযুক্ত হেঞ্জু মিয়া মারা যাওয়ায় তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

চট্টগ্রাম জেলা পিপি অ্যাডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী জানান, হত্যা মামলার আসামি শফিউল আলম, সাহাবুদ্দিন ও আমির হামজাকে আমৃত্যু বিনাশ্রম কারাদণ্ড, ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড এবং তা অনাদায়ে আরো ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেনে আদালত।

অন্যদিকে কবির আহমেদ, দিদারুল আলম মিলন, আবু আবদুল্লাহ কিরন, সিদ্দিক আহমদ, রুহুল আমিন, হুমায়ুন কবির ওরফে কাবির আহমদ, আরিফ হোসেন আরিফ, আনোয়ারুল আজিম ও জয়নাল আবেদীনকে ৩০ বছর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড; ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড এবং তা অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

Yakub Group

এছাড়া ৩০ বছরের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রাপ্ত আসামিদের কারাভোগের সময় সাজা থেকে কাটা হবে। সকল সাজা একইসঙ্গে চলবে।

তিনি আরও জানান, রায় ঘোষণার সময় কবির আহম্মদ ও হুমায়ুন কবির ওরফে কবির আহমদ উপস্থিত থাকায় তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেছেন এডিশনাল পিপি অ্যাডভোকেট আজহারুল হক, এডিশনাল পিপি অ্যাডভোকেট ইকবাল হোসেন ও সহকারী পিপি অ্যাডভোকেট সেলিনা আক্তার।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯৩ সালের ১৮ জুন দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মিরসরাই থানার সাহেরখালি ভোরের বাজার এলাকায় মো. সাইফুদ্দিন ইমরানকে অস্ত্র দিয়ে আক্রমণ করে আসামিরা। এই সময় সাইফুদ্দিনর সঙ্গে থাকা নাজিম উদ্দিন ও আলাউদ্দিনকেও মারধর করে রক্তাক্ত করে আসামিরা। এরপর সাইফুদ্দিনকে রক্তাক্ত অবস্থায় তুলে নিয়ে যায় তারা। এই ঘটনায় সাইফুদ্দিনের বাবা মো. ইসমাইল সিদ্দিকী বাদি হয়ে মিরসরাই থানায় মামলা দায়ের করেন।

ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm