s alam cement
আক্রান্ত
১০২৩১৪
সুস্থ
৮৬৮৫৬
মৃত্যু
১৩২৮

৩০ ঘণ্টায় ১৯ করোনারোগীর লাশ কর্ণফুলীর গাউসিয়া কমিটির কাঁধে

‘এতো লাশ দাফন জীবনের নতুন অভিজ্ঞতা’

0

করোনাভাইরাস সংক্রমণের শুরু থেকে চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে করোনায় মারা যাওয়া ব্যক্তিদের লাশ দাফন-কাফন ও সৎকার করে আসছে গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ। চট্টগ্রামের কর্ণফুলী উপজেলায়ও মানবিক টিম নামে গাউসিয়া কমিটির স্বেচ্ছাসেবকরা করোনায় মৃতদের দাফন-কাফন ও সৎকারে অংশ নিচ্ছেন।

এক বছর ধরে সংগঠনটির স্বেচ্ছাসেবীরা এ কাজের সাথে জড়িত। এ সময়ে অনেক অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে হয়েছে সংগঠনটির সদস্যদের। তবে এবার মুখোমুখি হলেন নতুন অভিজ্ঞতার। মাত্র ৩০ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ১৯ জনকে দাফন-কাফন ও সৎকার কাজ সম্পন্ন করেছে টিমের সদস্যরা।

রোববার (১ আগস্ট) রাত ১২টা থেকে সোমবার দুপুর পর্যন্ত ৮ জন পুরুষ ও ১১ জন মহিলার লাশ দাফন করেছে সংগঠনটির সদস্যরা। এর মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন জেলা ও উপজেলার মুক্তিযোদ্ধাসহ বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষ।

মৃত ব্যক্তিরা হলেন চন্দনাইশ উপজেলার গাছবাড়িয়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সোলাইমান চৌধুরী (৭২), বোয়ালখালীর মো. হাসি মিয়া (৮০), ফরিদ আহমদ চৌধুরী (৫৫), বেগম শামসুন্নার (৫৬), শিরু আকতার (৩৮), ফটিকছড়ি শাহ্ নগরের মোহাম্মদ আলী (৭১), বাদামতলী চান্দগাঁও এর মিনহাজ ভোলা (২৫), নোয়াখালী বেগমগঞ্জের হাজী আব্দুল খালেক (৯২), হাটহাজারী উত্তর মার্দাশার মো. গোলাম রসুল (৬৩), আনোয়ারা শোলকাটার মো. আবুল বশর খান (৭৫), চান্দগাঁও এর হাজী জহুরা বেগম (৭৫), উত্তর কাট্টলী আকবর শাহ এলাকার ছেনোয়ারা বেগম (৬৪), সাতকানিয়ার সকিনা খাতুন (৭২), ফটিকছড়ির রহিমা বেগম (৬০), বাঁশখালীর মোছাম্মৎ বেগম জান (৮০), কুষ্টিয়ার হেলেনা পারভীন (৪৬), ভাটিয়ালীর মরিয়ম খাতুন (৬০), রাঙ্গুনিয়ার জাহানারা বেগম (৬৫) এবং লোহাগাড়ার মোজাহার খাতুন (৭৫)।

বিভিন্ন হাসপাতাল ও বাসা থেকে করোনায় বা উপসর্গসহ মৃত ব্যক্তির স্বজনদের অনুরোধে দাফন ও সৎকার কাজ করে গাউসিয়া কমিটি কর্ণফুলীর স্বেচ্ছাসেবক টিম ও মানবিক টিম। আর মহিলাদের গোসল ও কাফনে সহযোগিতা করে চান্দগাঁও মহিলা টিম।

গাউসিয়া কমিটি কর্ণফুলী স্বেচ্ছাসেবক টিম ও মানবিক টিমের সমন্বয়ক মো. ইমতিয়াজ উদ্দিন জানান, বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকে আমাদের এ সংগঠন। করোনাভাইরাস সংক্রমণের শুরু থেকেই মাস্ক, স্যানিটাইজার বিতরণসহ সচেতনতামূলক কাজ এবং দাফন-কাফন ও সৎকার করে আসছে সংগঠনের সদস্যরা। গত ৩০ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ১৯ জনকে দাফন-কাফন ও সৎকার কাজ সম্পন্ন করা এটা আমাদের কর্ণফুলী টিমের রের্কড। একদিনে এতো মানুষের দাফন আর হয়নি।

কেএস

ManaratResponsive

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm