৩ বছরে ২০ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব বেড়েছে চট্টগ্রাম কাস্টমসে

0

তিন বছরে ২০ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব বাড়িয়ে চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস ছাড়ছেন কমিশনার মো. ফখরুল আলম। তিনি যোগ দেওয়ার পর প্রথম বছরে ৪১ হাজার কোটি টাকা থেকে তিন বছরে ৬০ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব বৃদ্ধি করেছেন। এখন থেকে ঢাকার কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন তিনি।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসে শেষ কর্মদিবস ছিল ফখরুল আলমের। তিনি চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসে কমিশনারের দায়িত্ব নেন ২০১৯ সালের ৬ জুন।

চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস ছাড়ছেন কমিশনার মো. ফখরুল আলম।
চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস ছাড়ছেন কমিশনার মো. ফখরুল আলম।

ফখরুল আলম কমিশনার থাকাকালীন এই বছর ৬০ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হয়েছে কাস্টমসে। গত ২০২০-২১ অর্থবছরে রাজস্ব আয় হয়েছে ৫১ হাজার ৫৭৬ কোটি টাকা। গত ২০১৯-২০ অর্থবছরে রাজস্ব আয় হয়েছিল ৪১ হাজার ৮৫৪ কোটি টাকা। এর আরও আগে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে রাজস্ব আয় হয়েছে সাড়ে ৪২ হাজার কোটি টাকা। তবে ২০১৯-২০ অর্থবছরে করোনার কারণে বিশ্বব্যাপী অর্থনীতি মন্দার প্রভাব পড়ায় রাজস্ব আদায় কম হয়েছিল।

গত তিন অর্থবছরে ফখরুল আলম থাকাকালীন সময়ে রাজস্ব বেড়েছিল প্রায় ২০ হাজার কোটি টাকা। গত বছর প্রবৃদ্ধির হার ছিল ২৩ দশমিক ২০ শতাংশ। এবার এরচেয়ে ১৫ শতাংশ বেশি আদায় হয়েছে।

Yakub Group

চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস সূত্র জানায়, এবার ৩ হাজার ৮৮৪ কোটি টাকার রাজস্ব বকেয়া রয়ে গেছে। বকেয়া আদায় হলে চলতি অর্থবছরের মোট আদায় হতো ৬৩ হাজার ১৪০ কোটি টাকা।

যদিও গত অর্থবছরে ৫১ দশমিক ৫৭৬ কোটি টাকা আদায় করে ৫০ হাজার কোটি টাকার মাইলফলকে প্রবেশ করেছিল চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস। যা এ বছরও ধরে রেখেছে প্রতিষ্ঠানটি।

এ বছর বিপুল পরিমাণ বকেয়া রাজস্ব আদায় না হওয়ায় চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসের প্রবৃদ্ধি ৭ দশমিক ৪২ শতাংশ পেছিয়েছে। যদি বকেয়া আদায় হতো তাহলে কাস্টমসের প্রবৃদ্ধি হতো ২২ দশমিক ৪২ শতাংশ।

এ বিষয়ে মো. ফখরুল আলম চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘আমি চেষ্টা করেছি সরকারের রাজস্ব বৃদ্ধি করতে। আমি কতটুকু পেরেছি সেটির মূল্যায়ন করবেন আপনারাই। দীর্ঘদিন চট্টগ্রামে ছিলাম। তিন বছরের বেশি সময় চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসের দায়িত্ব পালন করেছি। এ সময়ে আপনাদের সহযোগিতা ও আন্তরিকতা স্মরণে থাকবে।’

বদলির আগমুহূর্তে বন্দরে মদ জব্দের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘জালিয়াতি চক্র সব সময় সক্রিয়। তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার ও জালিয়াতি করতে না পারার বিষয়ে আমার বেশ কিছু পরামর্শ জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে তুলে ধরবো। রাজস্ব বোর্ড আরও কঠোর হলে জালিয়াতি রোধ হবে।’

এদিকে গত ২১ জুলাই জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের এক আদেশে চট্টগ্রাম কাস্টমসের নতুন কমিশনার হিসেবে পদায়ন করা হয় ঢাকা কাস্টমসের কমিশনার ফাইজুর রহমানকে। বুধবার (৩ আগস্ট) থেকে শুরু হবে তার প্রথম কর্মদিবস।

প্রায় পৌনে এক লাখ কোটি টাকার রাজস্ব আহরণের চ্যালেঞ্জ নিয়ে ফাইজুর রহমান যোগ দিচ্ছেন চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসে। তাকে ২০২২-২৩ অর্থবছরে ৭৪ হাজার ২০৬ কোটি টাকা রাজস্ব আদায়ে লক্ষ্যমাত্রা দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড।

এএস/ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm