হেড কোচের সাক্ষাৎকারের জন্য রাসেল ডোমিঙ্গো ঢাকায়

0

বিশ্বের ক্রিকেট কোচদের বেশ ব্যস্ত সময় যাচ্ছে এখন। কেউ চাকরি হারাচ্ছেন। কেউ নতুন চাকরির জন্য দরখাস্ত ঠুকছেন। সাক্ষাৎকার দিচ্ছেন। সেই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশে এসে সাক্ষাৎকার দিয়ে গেলেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো। তিনি বুধবার (৭ আগস্ট) সকালে ঢাকা এসেছেন এ দক্ষিণ আফ্রিকান। বৃহস্পতিবার রাতে ফিরে যাবেন। বুধবার দুপুরের পর বেলা আড়াইটার দিকে তাকে ধানমন্ডির বেক্সিমকো অফিসে দেখা গেছে। বলার অপেক্ষা রাখে না, বিসিবিপ্রধান নাজমুল হাসান পাপন সেখানেই অফিস করেন।

বিসিবি এখনো বিষয়টা গোপন রাখতে চাচ্ছে। বোর্ড কর্মকর্তাদেরও কেউ এ নিয়ে একটিও আনুষ্ঠানিক বক্তব্য দেননি। তবে বিসিবি বিগ বস ৭২ ঘণ্টা আগে বলেছেন, ৭ থেকে ১০ দিনের মধ্যে কোচ ইস্যুর সমাধান হয়ে যাবে। আমরা ১০ দিনের মধ্যে কোচ নিয়োগের কাজ সেরে ফেলবো। এমনকি একদিন আগে বিসিবি সিইও নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন জানিয়েছিলেন, শিগগিরই কোচ পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশ দল।

এখন বোঝা যাচ্ছে ডোমিঙ্গোর সাথে আলাপ আলোচনা এগুনো এবং তাকে ইন্টারভিউতে ডাকার সব বন্দোবস্ত করেই বিসিবির শীর্ষ কর্মকর্তারা এসব কথা বলেছিলেন।

বিশ্বকাপ শেষেই কোচ স্টিভ রোডসকে ছাঁটাই করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। নতুন কোচের জন্য দরখাস্ত আহ্বান করা হয়। প্রাথমিকভাবে যে কয়টি দরখাস্ত পড়েছিলো তার একটি ছিলো রাসেল ডোমিঙ্গোর। দক্ষিণ আফ্রিকার হেড কোচের দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতা থাকলেও রাসেল ডোমিঙ্গোর নামটা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড মুলত বিবেচনা করছে বয়সভিক্তিক কোচের পদের জন্যই। বিসিবির কয়েকজন পরিচালক এই তথ্য জানান।

হেড কোচের জন্য আরো হাই প্রোফাইল কাউকে চাইছে বিসিবি। তবে এই বিষয়ে বিসিবির সংশ্লিষ্ঠ কেউ আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

বিশ্বকাপে পাকিস্তানের কোচ মিকি আর্থারকেও এখন নতুন চাকরি খুঁজতে হচ্ছে। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড তার চাকরির মেয়াদ আর বাড়ায়নি। ১৫ আগস্ট পর্যন্ত মিকি আর্থারের চাকরির মেয়াদ ছিলো। বিশ্বকাপে দল ব্যর্থ হলেও এই দক্ষিণ আফ্রিকান কোচ পাকিস্তান ক্রিকেট দলের সঙ্গে আরো বছর দুয়েক কাজ করার আগ্রহ দেখিয়েছিলেন। কিন্তু পিসিবি তার আব্দার শুনেনি। এমন কিছু হবে জেনেই মিকি আর্থার তার বায়োডাটা তৈরিই রেখেছিলেন। শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশ দু দেশই হেড কোচ খুঁজছে-এটা তার জানা থাকায় দুই জায়গায় দরখাস্ত ঠুকেছেন মিকি আর্থার।

সর্বশেষ যা পরিস্থিতি তাতে খুব শিগগিরই মিকি আর্থারকে শ্রীলঙ্কার নতুন কোচের দায়িত্বে দেখা গেলে অবাক হওয়ার কিছু নেই। মিকি আর্থারের প্রতি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডেরও একটা আগ্রহ আছে।

শ্রীলঙ্কার কোচ চন্ডিকা হাতুড়েসিংহেও চাকরি হারিয়েছেন। দ্বিতীয় দফায় তাকে বাংলাদেশের কোচের পদে দেখার আশা নিয়ে একসময় বিসিবি’র আগ্রহের কথা শোনা গিয়েছিলো। তবে এই বিষয়ে বিসিবি’র আনুষ্ঠানিক বক্তব্য হলো-চাকরি চেয়ে হাতুড়েসিংহের কোনো দরখাস্ত পড়েনি বিসিবির বাক্সে!

দক্ষিণ আফ্রিকার ছাঁটাই হওয়া কোচ ওটিস গিবসনও এখন বেকার। এই ওয়েস্ট ইন্ডিয়ানও নতুন চাকরির খোঁজে আছেন।

বিশ্বকাপের পর বাংলাদেশ পুরো কোচিং প্যানেলে বড় ধরনের বদল আনে। শুধুমাত্র ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুক ছাড়া বাকি কারো সঙ্গেও আর চুক্তি নবায়ন করেনি বিসিবি। এরই মধ্যে পেস বোলিং কোচ হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকার চালর্স ল্যাঙ্গেভেল্ট এবং স্পিন কোচ হিসেবে ড্যানিয়েল ভেটোরিকে সামনের বছরের টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত নিয়োগ দিয়েছেন বাংলাদেশ।

Loading...
আরও পড়ুন