s alam cement
আক্রান্ত
৩৪৪৬৬
সুস্থ
৩১৭৭৫
মৃত্যু
৩৭১

হালিশহরে হামলা শাহাদাতের গাড়িবহরে, লিটনের অনুসারীদের দুষছে বিএনপি

চট্টগ্রাম সিটির ভোট

0

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেনের নির্বাচনী প্রচারণার গাড়িবহরে অতর্কিত হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হন বিএনপির ৪ জন কর্মী। এ সময় ডা. শাহাদাতের গাড়ির লাইট ও গ্লাসও ভাঙচুর করা হয়।

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) বিকেল তিনটার দিকে ডা. শাহাদাত নগরীর জমিয়াতুল ফালাহ জামে মসজিদ থেকে হালিশহর পর্যন্ত গণসংযোগ শেষে ফেরার পথে হালিশহর থানার ঈদগাহ নয়াবাজার এলাকার রূপসা বেকারির সামনে শাহাদাতের গাড়িবহরে হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি নেতারা।

ডা. শাহাদাত অভিযোগ করে বলেন, ‘২৫ নম্বর রামপুর ওয়ার্ড দিয়ে হালিশহর এলাকায় গণসংযোগে যাওয়ার সময় সরকারদলীয় সন্ত্রাসীরা আমার গাড়ির পেছন দিকে রড ও লাঠি দিয়ে হামলা করে। এ সময় আমার গাড়ি চলন্ত অবস্থায় ছিল। তাদের হামলায় আমাকে বহনকারী গাড়ির পেছনের অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।’

হামলার জন্য ছাত্রলীগ ও যুবলীগ কর্মীদের দায়ী করে শাহাদাত বলেন, ‘স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুস সবুর লিটনের সমর্থক খোকন, নূর হোসেন, জাভেদ ও নুরউদ্দিনের অনুসারীরা এ হামলা চালিয়েছে।’

এদিকে ডা. শাহাদাত রিটার্নিং কর্মকর্তাকে টেলিফোনের হামলার ঘটনার ব্যাপারে জানালেও পুলিশ বলছে, সেখানে হামলা বা ভাঙচুরের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

Din Mohammed Convention Hall

এর আগে শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম নগরীর ১৬ নম্বর চকবাজার ওয়ার্ডে ধানের শীষের নির্বাচনী গণসংযোগে গিয়ে বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনের আগে বৈধ অস্ত্র জমা এবং অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে অভিযানের দাবি জানিয়েছিলেন। নইলে নির্বাচনী সহিংসতা ও হতাহতের ঘট্না আরও বাড়তে পারে বলে তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেন।

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা. শাহাদাত বলেন, ‘প্রতিটি নিবার্চনের আগে নিয়ম অনুযায়ী সব বৈধ অস্ত্র জমা নিয়ে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে প্রশাসন তৎপর থাকে। কিন্তু চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রশাসন এখনও পর্যন্ত অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান কিংবা বৈধ অস্ত্র জমা নেওয়ার কোনো ধরনের উদ্যোগ নেয়নি। ফলে প্রতিদিন ক্ষমতাসীন দলের সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের ঝনঝনানি, হানাহানি শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে পাঠানটুলি ও বাকলিয়াতে নিজেদের মধ্যে গোলাগুলি ও ছুরিকাঘাতে দুজন নিহত হয়েছে।’

বিএনপির এই মেয়র প্রার্থী অভিযোগ করেন, বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) গভীর রাতে নগরীর হালিশহর রামপুর ওয়ার্ডের বড়পুকুর পাড়ে ধানের শীষের পোস্টার লাগাতে গেলে তাদের ওপর যুবলীগ কর্মীরা হামলা চালিয়েছে।

সিপি

ManaratResponsive

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন

ইয়াবা ধরে বেচে দিতেন চট্টগ্রামের দুই পুলিশ

চট্টগ্রামের সেই ইয়াবা ব্যবসায়ী পুলিশকে জেলেই যেতে হল

নামে-বেনামে বিপুল সম্পদের প্রমাণ মিলেছে, বলছে দুদক

স্ত্রীসহ আমীর খসরুকে আবার ডেকেছে দুদক, ভায়রাও আছে

ksrm