হঠাৎ পেছাল উদ্বোধন, পতেঙ্গা কন্টেইনার টার্মিনালে জাহাজ ভিড়বে আগস্টে

0

চট্টগ্রামের পতেঙ্গা কন্টেইনার টার্মিনালে জাহাজ ভিড়বে আরও একমাস পর। আগস্টে শেষ সপ্তাহে এ টার্মিনাল উদ্বোধন করা হতে পারে।

এর আগে ২১ জুলাই পতেঙ্গা কন্টেইনার টার্মিনালে (পিসিটি) পরীক্ষামুলক জাহাজ ভিড়িয়ে উদ্বোধন হওয়ার কথা থাকলেও এখন এ সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে চট্টগ্রাম বন্দর কতৃপক্ষ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সচিব ওমর ফারুক চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘কিছু টেকনিক্যাল কাজ সম্পন্ন না হওয়ায় জাহাজ ভিড়ানোর দিনটি পেছাতে হলো। এ কাজটি আরও একমাস পড়ে হবে।’

জানা গেছে, পিসিটি চালুর মাধ্যমে বন্দরে আসা জাহাজগুলোর অবস্থান সময় (টার্ন অ্যারাউন্ড টাইম) কমে আসবে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এছাড়া কন্টেইনার ডেলিভারীর পর সাগর পাড়ের বেড়িবাঁধের লিংক রোড ধরে যানজট এড়িয়ে গন্তব্যে চলে যেতে পারবে পণ্য বোঝাই গাড়ি।

Yakub Group

তাই ব্যবসায়ীদের কাছেও পছন্দের ইয়ার্ড হতে যাচ্ছে পিসিটি। ধীরে ধীরে গিয়ারড জাহাজ (নিজস্ব ক্রেনযুক্ত জাহাজ), কন্টেইনার জাহাজ, জেনারেল কার্গো বার্থে যাত্রা শুরু হবে পতেঙ্গা কন্টেইনার টার্মিনালে।

চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সচিব ওমর ফারুক জানান, ২০১৭ সালের ১৩ জুনে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের নিজস্ব অর্থে বাস্তবায়নাধীন পতেঙ্গা কন্টেইনার টার্মিনাল শীর্ষক প্রকল্পটি ১ হাজার ৮৬৮ কোটি টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে অনুমোদিত হয়।

তখন এর বাস্তবায়নে সময়সীমা নির্ধারিত ছিল ২০১৯ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত। পরবর্তী সময়ে চট্টগ্রাম বন্দরের পক্ষ থেকে প্রাক্কলিত ব্যয় ১ হাজার ৩৯৩ কোটি ৪১ লাখ টাকা এবং প্রকল্পের মেয়াদ ২০২১ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত বৃদ্ধির প্রস্তাব করে আরডিপিপি পাঠানো হয়।

প্রাক-সমীক্ষা অনুযায়ী টার্মিনালটির বার্ষিক পরিচালনা ব্যয় ৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

পতেঙ্গা কনটেইনার টার্মিনালের প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী মিজানুর রহমান সরকার চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘বন্দরের মুল জেটির চেয়ে পতেঙ্গা কন্টেইনার টার্মিনালে কম সময়ে জাহাজ ভিড়ানো সম্ভব হবে। পিসিটির তিনটি জেটিতে একই সাথে ১৯০ মিটার দৈর্ঘ্যের জাহাজ ভিড়ানো যাবে। এছাড়া এ জেটির সাথে সড়কের কানেক্টিভিটি খুবই ভাল হওয়ায় ব্যবসায়ীদের প্রথম পছন্দ হবে পিসিটি।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ প্রকল্পে ৫৮৩ মিটার কন্টেইনার টার্মিনালে তিনটি জেটি, ২০৪ মিটারে ডলফিন জেটি, ৮০ হাজার বর্গমিটার আরসিসি পেভমেন্ট/ ইয়ার্ড, ৪২০ মিটার ফ্লাইওভার, ১ দশমিক ২০ কিলোমিটার চার লেইনের রাস্তা নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে।’

এএস/এমএফও

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm