স্যান্ডেল চুরির অপবাদ দিয়ে শিক্ষকসহ দুই এতিম শিশুকে পেটালো বখাটের দল

স্যান্ডেল চুরির অপবাদ দিয়ে চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় একটি এতিমখানার দুই শিশু ও তাদের দু্ই শিক্ষককে নির্মমভাবে পেটানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৯ আগস্ট) সাতকানিয়া উপজেলার এওচিয়া ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ড আজিজিয়া দাখিল মাদ্রাসা সংলগ্ন এতিমখানার ভেতর একদল যুবক ঢুকে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে।

এতিমখানার ভেতরে মারধরে আহত দুই শিশুর নাম— মো. ইকবাল (১২) ও তার ছোট ভাই মো. ইশমাম (৮)। তাদের বাড়ি বাঁশখালী হলেও বাবা মারা যাওয়ার পর তারা সাতকানিয়ার এই এতিমখানায় আশ্রয় নেয়। অন্যদিকে একই ঘটনায় মারধরের শিকার দুই শিক্ষক হলেন— জাফর আহমদ (৩৩) ও সালাহউদ্দীন (২৫)। তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় শিক্ষক সালাহউদ্দিন বাদি হয়ে বুধবার (৩০ আগস্ট) রাতে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। তবে বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) বিকেলে ঘটনাটি প্রকাশ হওয়ার পর এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

থানায় দায়ের করা অভিযোগ থেকে জানা যায়, নুরুল ইসলাম নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি এতিমখানার সাথে লাগোয়া মসজিদে ঢোকার পর তার জোড়া স্যান্ডেল থেকে একটি হারিয়ে যায়। পরে এজন্য তিনি এতিমখানার শিশু শিক্ষার্থীদের দায়ী করেন। এর একপর্যায়ে তিনি শিশু শিক্ষার্থীদের কয়েকজনকে মারধর করেন।

অভিযোগ থেকে জানা গেছে, মঙ্গলবার (২৯ আগস্ট) সন্ধ্যায় নুরুল ইসলামের ছেলে তোহা অন্তত ৭-৮জনকে সঙ্গে নিয়ে এতিমখানায় ঢুকে ১২ বছর বয়সী শিশু ইকবালকে এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করে। এই অবস্থা দেখে তার ছোট ভাই ৮ বছর বয়সী ইশমাম ও মাদ্রাসার শিক্ষক সালাহউদ্দীন এগিয়ে যান। এ সময় তাদেরও প্রচণ্ড মারধর করা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নুরুল ইসলামের ছেলে তোহার বিরুদ্ধে সাতকানিয়া থানায় বেশ কয়েকটি মামলা আছে। এমন এক মামলায় মাত্র ১৫ দিন আগে তোহা জামিনে বের হয়েছে কারাগার থেকে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!