স্কুলের গন্ডি পেরুনোর আগেই অপহরণ চক্রে ১০ কিশোর

0

ওরা পাড়ার বখাটে। কেউই স্কুলের গন্ডি পেরুয়নি। দলে ১০ থেকে ১৫ জন। টাকা আয়ের চিন্তায় তারা মাথায় আনে অপহরণ পরিকল্পনা। ঢুঁ মারতে থাকে রাতের অন্ধকারে, রাস্তায়। এক ব্যবসায়ীকে অপহরণ করে তার কাছ থেকে টাকা পয়সাও হাতিয়ে নেয়। আত্মীয়স্বজনদের কাছ থেকে বিকাশে নিয়ে আসে আরও টাকা।

১১ ফেব্রুয়ারি এক ব্যবসায়ীকে অপহরণের পর চট্টগ্রামের চান্দগাঁও থানায় সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) ১০ জনকে আটক করে পুলিশ। এদের মধ্যে দুইজনের কাছ থেকে দুইটি ছুরিও উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ বলছে, এরা কিশোর গ্যাং সদস্য। পাড়ার বখাটে হলেও এ পেশায় নতুন। কারণ তাদের নামে চট্টগ্রামের কোন থানায় কোন মামলা নেই।

পুলিশ জানিয়েছে, গ্রেপ্তারকৃত ১০ কিশোর গ্যাং কফিল উদ্দিন নামে এক ব্যবসায়ীকে অপহরণ করে। সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) তাদের গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন চান্দগাঁও থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রাজেশ বড়ুয়া।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- আহসান আহম্মেদ আকিব (১৯), মো. পারভেজ (১৯), জাহেদ উল্লাহ (২২), মো. আরমান (২০), মো. নয়ন (১৫), মো. আসিফ (১৫), মো. নিশাদ (১৭), মো. বাদশা (১৬), মো. কফিল উদ্দীন (১৫) ও মো. হৃদয় (১৭)।

চান্দগাঁও থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রাজেশ বড়ুয়া বলেন, গ্রেপ্তারকৃত ১০ জনের মধ্যে মোহরা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে একজন ৮ম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশুনা করেছে। লকডাউনের ছুটিতে সে বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিত পাড়ায়। পরে তার বাকিদের সাথে পরিচয় হয়। একজন ছাড়া অন্যরা কেউই হাইস্কুলের গণ্ডি পেরুয়নি।

Yakub Group

পাড়ার আড্ডা থেকে তারা বখাটের দলে নাম লেখায়। মাথায় চিন্তা আসে বাড়তি টাকা আয়ের। বুদ্ধি মোতাবেক অপহরণ পরিকল্পনা করে। সেই অনুযায়ী রাতের রাস্তায় সিএনজি অটোরিকশার যাত্রীদের প্রতি নজর রাখত দলের সবাই। ১১ ফেব্রুয়ারি রাতে তারা মোহাম্মদ কফিল উদ্দীন নামে এক ব্যবসায়ীকে ২ নম্বর গেট এলাকা থেকে ছুরি ধরে চান্দগাঁও সিঅ্যান্ডবি বিসিক শিল্প এলাকার একটি পরিত্যক্ত ভবনে নিয়ে আটকে রাখে।

তারা কফিল উদ্দীনের কাছ থেকে মুক্তিপণ হিসেবে ৩০ হাজার টাকা দাবি করে। আরও টাকা আদায়ের জন্য তারা কফিল উদ্দিনের পরিবারের কাছে ফোন দিয়ে টাকা আনতে বলে। নিজের কাছে থাকা ও বিকাশে এনে অপহরণকারীদের হাতে মোট ১২ হাজার ৮৫০ টাকা তুলে দেয়। পরে তারা কফিলকে ছেড়ে দেয়।

কফিল উদ্দিন থানায় বিষয়টি জানিয়ে মামলা করলে পুলিশ অভিযানে নামে। সোমবার পুলিশ কিশোর গ্যাং এর ১০ সদস্যকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ থেকে জানা গেছে তাদের দলে আরও কয়েকজন রয়েছে। পুলিশে তাদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে বলে জানান রাজেশ বড়ুয়া।

আইএমই/কেএস

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm