সেই ইকবাল কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত থেকে আটক

0

কুমিল্লায় মন্দিরে পবিত্র কোরআন শরিফ রাখার ঘটনায় সন্দেহভাজন সেই ইকবাল হোসেনকে অবশেষে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) রাত সোয়া ১০টার দিকে সমুদ্র সৈকত এলাকা থেকে ইকবাল হোসেনকে আটক করা হয় বলে জানিয়েছেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম।

তবে আটক ব্যক্তি কুমিল্লায় পূজা মণ্ডপে পবিত্র কোরআন শরিফ রাখা ইকবাল হোসেন কি না তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম জানান, আটকের পরপরই তাকে কুমিল্লার উদ্দেশ্যে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১৩ অক্টোবর ভোরে কুমিল্লার নানুয়াদিঘির পাড়ের পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন শরিফ পাওয়া যায়। এরপরই দেশের কয়েক স্থানে সংঘর্ষ ও হামলার ঘটনা ঘটে। ঘটনার জেরে ওই দিন চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে হিন্দুদের ওপর হামলা চালানো হয়। এতে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে পাঁচ জন নিহত হয়।

পরদিন নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে হিন্দুদের মন্দির, মণ্ডপ ও দোকানপাটে হামলা–ভাঙচুর চালানো হয়। সেখানে হামলায় দুই জন নিহত হন। এরপর রংপুরের পীরগঞ্জে হিন্দু বসতিতে হামলা করে ভাঙচুর, লুটপাট ও ঘরবাড়িতে অগ্নিসংযোগ করা হয়। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। এরই মধ্যে শতাধিক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার কুমিল্লা পুলিশ জানায়, ইকবাল হোসেন (৩৫) নামে স্থানীয় এক যুবক গভীর রাতে মসজিদ থেকে পবিত্র কোরআন নিয়ে ওই পূজামণ্ডপে রেখেছিলেন। ঘটনার সিসি ক্যামেরার ফুটেজ বিশ্লেষণ করে ইকবালের বিষয়ে তারা নিশ্চিত হয়েছেন। তবে ইকবাল হোসেনকে ভবঘুরে হিসেবে বর্ণনা করে পুলিশ বলেছে, কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে তার সম্পৃক্ততা ছিল কি না, সে বিষয়ে তারা নিশ্চিত হতে পারেনি।

পুলিশের দেওয়া তথ্যমতে, ইকবালের বাবার নাম নূর আহমেদ আলম। তাদের বাড়ি কুমিল্লা নগরের সুজানগর এলাকায়।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm