সিভাসুতে আছে আধুনিক ল্যাবরেটরি, গবেষণার পরিবেশ ভালো

0

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের নির্বাহী চেয়ারম্যান কৃষিবিদ ড. শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার বলেছেন, ‘চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে (সিভাসু) অত্যাধুনিক ল্যাবরেটরি রয়েছে। আছে গবেষণার ভালো পরিবেশ। যা অনেক জায়গায় নেই। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে একটি গবেষণা দিয়েই চাইলে যে কেউ ‘স্টার’ হয়ে যেতে পারেন।’

বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সিভাসু অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত এমএস এবং এমপিএইচ প্রোগ্রামের নবীন শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন কৃষিবিদ ড. শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার।

ওরিয়েন্টশনে উপস্থিত ছিলেন সিভাসুর উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ, মৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. নূরুল আবছার খান, ফুড সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. জান্নাতারা খাতুন, ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. আবদুল আহাদ এবং ওয়ান হেলথ ইনস্টিটিউটের পরিচালক প্রফেসর ড. শারমীন চৌধুরী।

সিভাসুর গবেষণা ও সম্প্রসারণ বিভাগের পরিচালক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলমগীর হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উচ্চশিক্ষা ও গবেষণা কমিটির সমন্বয়ক ড. পংকজ চক্রবর্তী।

কৃষিবিদ ড. শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার বলেন, ‘জীবনে বড় কিছু অর্জন করতে হলে স্বপ্নও বড় দেখতে হবে। শুধু স্বপ্ন দেখলে হবেনা, স্বপ্নের পেছনে নিবিড়ভাবে লেগে থেকে কাজ করতে হবে। কাজের প্রতি ডেডিকেশন থাকলে জীবনে সফলতা আসবেই।’

সিভাসু ভিসি প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ বলেন, শিক্ষার ক্ষেত্রে এমএস ও এমপিএইচ কোর্সের শিক্ষার্থীদের মূল কাজই গবেষণা। চাহিদার ভিত্তিতে গবেষণা করতে হবে। গবেষণার ফলাফল মাঠ পর্যায়ে নিয়ে যাওয়াটাই বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বার্থকতা।

এফএম/এসএস

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন