সিএমপি কমিশনারসহ ১৪ কর্মকর্তা অতিরিক্ত আইজিপি হলেন

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায়সহ পুলিশের ১৪ কর্মকর্তা অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক (গ্রেড-২) পদে পদোন্নতি পেয়েছেন। ‘সুপারনিউমারারি’ বা সংখ্যাতিরিক্ত পদের বিপরীতে এসব কর্মকর্তাদের পদোন্নতি দেওয়া হয়।

বিশেষ এই পদ্ধতিতে তাদের জন্য পদ তৈরি করে পদায়ন হবে ইনসিটু পদ্ধতিতে অর্থাৎ পদোন্নতি পেলেও তারা আগের পদে দায়িত্ব পালন করবেন।

রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের উপসচিব মো. মাহাবুর রহমান শেখ স্বাক্ষরিত এক আদেশে এ তথ্য জানানো হয়।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায় ছাড়াও সুপার নিউমারারিতে পদোন্নতিপ্রাপ্তরা হলেন— পুলিশ টেলিকমের উপপুলিশ মহাপরিদর্শক এ কে এম শহিদুর রহমান, ঢাকার ট্রেনিং ড্রাইভিং স্কুলের কমান্ড্যান্ট (উপপুলিশ মহাপরিদর্শক) ময়নুল ইসলাম, স্পেশাল সিকিউরিটি অ্যান্ড প্রটেকশন ব্যাটালিয়নের উপপুলিশ মহাপরিদর্শক গোলাম কিবরিয়া, ঢাকার অপরাধ তদন্ত বিভাগের উপপুলিশ মহাপরিদর্শক কুসুম দেওয়ান, উপপুলিশ মহাপরিদর্শক (পুলিশ টেলিকম) বশির আহম্মদ, পুলিশ অধিদফতরের উপপুলিশ মহাপরিদর্শক আনোয়ার হোসেন, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ড. খ. মহিদ উদ্দিন ও রংপুর রেঞ্জ পুলিশের উপপুলিশ মহাপরিদর্শক আবদুল বাতেন।

এছাড়া নিয়মিত পদোন্নতির অংশ হিসেবে উপমহাপরিদর্শক থেকে অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক হয়েছেন চারজন। এই কর্মকর্তারা হলেন— ঢাকার পুলিশ অধিদফতরের উপপুলিশ মহাপরিদর্শক খন্দকার লুৎফুল কবির, ঢাকার অ্যান্টি টেররিজম ইউনিটের উপপুলিশ মহাপরিদর্শক আবদুল আলীম মাহমুদ, ঢাকার হাইওয়ে পুলিশের উপমহাপরিদর্শক মাসুদুর রহমান ভূঞা, পুলিশ অধিদফতরের উপপুলিশ মহাপরিদর্শক তওফিক মাহবুব চৌধুরী।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, জনস্বার্থে জারিকৃত এ আদেশ যোগদানের তারিখ থেকে কার্যকর করা হবে। পদোন্নতি পাওয়া কর্মকর্তারা যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে সিনিয়র সচিব, জননিরাপত্তা বিভাগ বরাবর যোগদান করবেন এবং পরবর্তী পদায়ন না হওয়া পর্যন্ত স্ব স্ব পদে বহাল থেকে দায়িত্ব পালন করবেন।

এতে আরও বলা হয়েছে, পদগুলোতে কর্মরত পদধারীদের পদোন্নতি, অবসর, অপসারণ বা অন্য কোনো কারণে পদ শূন্য হলে তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিলুপ্ত হবে এবং পদ সৃজনের তারিখ থেকে ১০টি সুপারনিউমারি পদের মেয়াদ হবে এক বছর। পদোন্নতি পাওয়া কর্মকর্তারা স্বপদে বহাল থেকে দায়িত্ব পালন করবেন। এছাড়া যেসব কর্মকর্তা মিশন, শিক্ষা ছুটি বা প্রেষণ ও লিয়েনে কর্মরত, তারা মূল কর্মস্থলে যোগদানের পর তাদের পদোন্নতি কার্যকর হবে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!