আক্রান্ত
২০৮৬০
সুস্থ
১৬২৯১
মৃত্যু
৩০১

সারাদেশে আড়াই হাজার মৃত্যুর ৬৩৯ জন চট্টগ্রামের

করোনায় আরও ৩৯ মৃত্যু, শনাক্ত ২৭৩৩

0

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরো ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে চট্টগ্রাম বিভাগে আরও ছয় মৃত্যু নিয়ে এ সংখ্যা এখন ৬৩৯। এ নিয়ে দেশে ভাইরাসটির সংক্রমণে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ২ হাজার ৪৯৬ জনে। এছাড়া একই সময়ে নতুন করে ২ হাজার ৭৩৩ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে সর্বমোট ১ লাখ ৯৬ হাজার ৩২৩ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হলেন।

এ পর্যন্ত মারা যাওয়াদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে এক হাজার ২৪২ জন, চট্টগ্রামে ৬৩৯ জন, রাজশাহীতে ১২৮ জন, সিলেটে ১১৩ জন, খুলনায় ১৪৪ জন, বরিশালে ৯১ জন, রংপুরে ৮৩ জন এবং ময়মনসিংহে ৫৬ জন। তাদের বয়স বিভাজনে ০-১০ বছর ১৭ জন, ১১-২০ বছর ২৯ জন, ২১-৩০ বছর ৭৬ জন, ৩১-৪০ বছর ১৭৬ জন, ৪১-৫০ বছর ৩৫৯ জন, ৫১-৬০ বছর ৭৪২ জন এবং ৬০-১০০ বছর ১০৯৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১৯৭১ জন ও নারী ৫২৫ জন।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন হেলথ বুলেটিনে অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এসব তথ্য জানান।

তিনি নতুন যুক্ত একটিসহ মোট ৮০টি ল্যাবরেটরিতে নমুনা পরীক্ষার তথ্য তুলে ধরে জানান, করোনাভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৩ হাজার ৫৪৮টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ১২ হাজার ৮৮৯টি। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো নয় লাখ ৯৩ হাজার ২৯১টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে আরও দুই হাজার ৭৩৩ জনের মধ্যে। ফলে শনাক্ত করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল এক লাখ ৯৬ হাজার ৩২৩ জনে। আক্রান্তদের মধ্যে মারা গেছেন আরও ৩৯ জন। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে দুই হাজার ৪৯৬ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও এক হাজার ৯৪০ জন। এতে মোট সুস্থ রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল এক লাখ ছয় হাজার ৯৬৩ জনে।

নাসিমা সুলতানা জানান, নতুন একটি করোনা পরীক্ষা ল্যাব যুক্ত হয়েছে। পপুলার ডায়ানস্টিক সেন্টার লিমিটেড নামে এই বেসরকারি রোগ নির্ণয় প্রতিষ্ঠানটি যুক্ত হওয়ায় দেশে করোনা পরীক্ষায় নিয়োজিত মোট ল্যাবের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮০টিতে। তিনি আরো জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় রোগী শনাক্তের হার ২১ দশমিক ২০ শতাংশ এবং এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় রোগী শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৭৬ শতাংশ। আর রোগী শনাক্ত বিবেচনায় এখন পর্যন্ত সুস্থতার হার ৫৪ দশমিক ৪৮ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৭ শতাংশ।

২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে পুরুষ ৩১ জন এবং নারী আট জন। এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন, তাদের মধ্যে পুরুষ এক হাজার ৯৭১ জন; যা ৭৮ দশমিক ৯৭ শতাংশ এবং নারী ৫২৫ জন; যা ২১ দশমিক ০৩ শতাংশ। নাসিমা সুলতানা জানান, ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণকারীদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, শূন্য থেকে ১০ বছরের মধ্যে একজন, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে দুই জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে তিন জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১২ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১৫ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে চার জন এবং ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন।

এমএহক

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ManaratResponsive

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm