সময় ৭ দিন, পরিবহন আইন সংশোধন না করলে অঘোষিত ধর্মঘট (ভিডিওসহ)

1

সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮-এর ধারা সংশোধনের দাবিতে বৃহত্তর চট্টগ্রাম পণ্য পরিবহন ফেডারেশনের ব্যানারে এক প্রতিবাদ সভা মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) নগরীর কদমতলী ট্রাংক মার্কেট এলাকায় অনুষ্ঠিত হয়।

সকাল ১০টায় এ সভা শুরু হওয়ার পর থেকে চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকা থেকে পণ্য পরিবহন সংগঠনের ব্যানার নিয়ে মিছিল আসতে শুরু করে। এছাড়া রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি, হাটহাজারী, ফটিকছড়ি, বান্দরবান, বোয়ালখালী থেকে পিকআপ যোগে বেশ কয়েকটি মিছিল আসতে দেখা যায়। বিভিন্ন দিক থেকে গাড়ি নিয়ে এবং পায়ে হেঁটে মিছিল আসায় ডিটি রোডে পণ্য পরিবহনের অসংখ্য গাড়ি আটকা পড়ে। ফলে সড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। সড়কে প্রায় দুই ঘন্টাব্যাপী যানজটের সৃষ্টি হলেও বেশ কয়েকজন পুলিশকে নীরব ভূমিকা পালন করতে দেখা গেছে।

সভায় বৃহত্তর চট্টগ্রাম পণ্যপরিবহন ফেডারেশনের মহাসচিব মো. নুরুল আফছার বলেন, আমাদের কথা হচ্ছে ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি চলবে না। আমরা একমত। গাড়ির কাগজপত্র ছাড়া গাড়ি রাস্তায় নামবে না— এটার সাথে আমিও একমত। কিন্তু লাইসেন্স প্রদান সহজীকরণে মালিকের পক্ষে ৫০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। গাড়ির দাম হচ্ছে ১২ লাখ টাকা, মালিক ৫০ লাখ টাকা জরিমানা কেমনে দিবে। এ আইনগুলো তো সংশোধন করতেই হবে। এছাড়া ড্রাইভারদের ৩ মাসের মধ্যে লাইসেন্স দিতে হবে। সরকার এক সপ্তাহ সময় নিয়ে, চিন্তা ভাবনা করছেন। এখন আমরা দেখবো এক সপ্তাহের মধ্যে সরকার এই আইনকে কতটুকু সংশোধিত করে। আইন যদি সংশোধিত না হয় তাহলে ড্রাইভার সড়কে গাড়ি চালাবে না। আমার মালিকরাও রাস্তায় গাড়ি বের করবো না এবং অঘোষিত আন্দোলনে যাবো।

প্রাইম মুভার টেইলার মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিক আহমদ বলেন, আমরা আইনের পক্ষে। তবে আমাদের কথা বুঝতে হবে। আমরা লাইসেন্সবিহীন গাড়ি চালাবো না ঠিক আছে। কিন্তু এখানে কিছু কিছু আইন আছে সংশোধন করতে হবে। সরকারকে আমরা অনুরোধ করবো যাতে দ্রুত আইনগুলো সংশোধন করে। না হয় মালিক-শ্রমিক এক হয়ে চট্টগ্রামে বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দেবো।

এতে উপস্থিত ছিলেন বৃহত্তর চট্টগ্রাম পণ্যপরিবহন মালিক ফেডারেশনের সভাপতি আব্দুল মান্নান, রাঙামাটি ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি শাহাদাত হোসেন, আন্তঃজেলা কাভার্ডভ্যান মালিক সমিতির দিল মোহাম্মদ, মো. মনির আহমদ প্রমুখ।

এএইচ

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

1 মন্তব্য
  1. MD jewel parvez বলেছেন

    সড়ক নিরাপদ নিশ্চিত ততদিন করা যাবে না যতদিন সড়কের হাইওয়ে পুলিশের হয়রানি বন্ধ না হবে আর দিনে রাতে পণ্যবাহী গাড়ি গুলোকে সমানতালে চলতে না দেওয়া হবে

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন