“শিল্পায়নে পিএইচপি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে”

0

ঢাকা প্রতিনিধি : বাংলাদেশ ও ইন্দোনেশিয়ার মধ্যকার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যমান। এই সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে। বাংলাদেশ খুব দ্রুত উন্নতি করছে। চীনের পরে বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি ৬ শতাংশের বেশি। শিল্পায়নে পিএইচপি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে বলে মন্তব্য করেছেন ইন্দোনেশিয়ার বিদায়ী রাষ্ট্রদূত আইয়ান ওরানাতা আতামাজ। ঢাকার ওয়েস্টিন হোটেলে ২৫ জানুয়ারী (বুধবার) পিএইচপি পরিবারের দেওয়া বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সংবর্ধনার জবাবে তিঁনি এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে তিঁনি স্বস্ত্রীক অংশ নেন।

পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যদিয়ে শুরু হওয়া এ অনুষ্ঠানে অতিথিদের স্বাগত জানান পিএইচপি পরিবারের চেয়ারম্যান সূফী মোহাম্মদ মিজানুর রহমান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, প্রধানমন্ত্রীর পররাষ্ট্র সম্পর্ক বিষয়ক উপদেষ্টা গওহর রিজভী, মালয়েশিয়ান হাই কমিশনার নরলিন ওথম্যান, ব্যবসায়ী জিল্লুর রহমান, আবুল বাশার, আব্দুর রহমান, ইউআইটিএসের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. সোলায়মান, বিভিন্ন ব্যাংকের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাবৃন্দ, সাবেক জেলা ও দায়রা জজ মাজদার হোসেন ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণিপেশার বিশিষ্টজনেরা।

সংবর্ধিত অতিথি সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, আসার আগে এই দেশ সম্পর্কে আমি তেমন কিছুই জানতাম না। কিন্তু বাংলাদেশে এসে আমি সত্যিই অভিভূত। বাংলাদেশের মানুষ অত্যন্ত অতিথিপরায়ণ। তিঁনি বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়া প্রসঙ্গে বলেন, সন্ত্রাস দমন ও দারিদ্র বিমোচনে বাংলাদেশ যথেষ্ট পরিমান সফলতা দেখিয়েছে। তৈরি পোশাক শিল্পে বাংলাদেশ বিশ্ব জয় করেছে। সংবর্ধনার জন্য তিঁিন পিএইচপি পরিবারকে ধন্যবাদ জানান।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন