রোহিঙ্গাদের কারণে বাড়ছে পানের দাম!

0

বন্দরনগরী চট্টগ্রামের এমন কোনো ঘর পাওয়া মুশকিল যে ঘরে কেউ পান খায় না। দাদা-দাদি থেকে শুরু করে সব বয়সীরা পান পছন্দ করে থাকেন। সব বয়সীদের পান পছন্দ হলেও বাড়তি দামের কারণে এখন অনেকেই পান খেতে পারছেন না।

গত শনিবার রিয়াজুদ্দিন বাজারে গিয়ে দেখা যায়, এ বাজারে মহেশখালী, উখিয়া ও টেকনাফের পানের দাম তুলনামূলকভাবে বেড়েছে। প্রতি বিরা মিষ্টিপান বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা। যা গত সপ্তাহে ছিলো ৫০ টাকা। মহেশখালীর মিষ্টিপান বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকা থেকে ১২০ টাকা। এছাড়া ঝাল পান বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকায়।

পান কিনতে আসা আসিক রহমান বলেন, ‘পানের দাম যেভাবে বাড়ছে তাতে মধ্যবিত্তের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে যাচ্ছে। ১২০ টাকা পানের বিরা দেখে পান খাওয়া কমিয়ে দিয়েছি। এতো বেশি দাম দিয়ে শুধু পান খেলেতো সংসার চলবে না।’

পান বিক্রেতা মো. নুরুল আমিন বলেন, কক্সবাজার, উখিয়া, মহেশখালী, টেকনাফ, বান্দরবান, সাতকানিয়া, রাজশাহী, কুষ্টিয়া, ঝিনাইদহ, হাটহাজারী উপজেলার মানুষের মিঠিয়ে চট্টগ্রাম নগরীতে পাইকারি বাজারে আসে এসব পান। মাঝখানে কয়েকদিন বৃষ্টি হওয়ার কারণে পানের দাম বেড়েছে। কারণ বৃষ্টির পানিতে অনেক পান পঁচে নষ্ট হয়ে গেছে। তাই আমাদের বেশি দামে কিনতে হচ্ছে। যে দামে কিনি তার থেকে কয়েক টাকা লাভ হয়।

আরেক পান বিক্রেতা জসিম উদ্দিন অভিযোগ করে বলেন, সম্প্রতি উখিয়া-টেকনাফ থেকে পান আসছে না। রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মধ্যে পান খাওয়ার প্রবণতা বেশি। তারা ১০/১২ বছরের উপরের বাচ্চা থেকে নারী-পুরুষ সবাই পান খায়। যার কারণে ওই এলাকায় পানের চাহিদা বেড়ে গেছে। ফলে ওই পান আমরা পাচ্ছি না। যার ফলে দামের দিকে একটু প্রভাব পড়ছে।’

এএইচ

Loading...
আরও পড়ুন