রেডিসন: অন্যরকম এক বিয়েবাড়ি

0

নগরীর পাঁচতারকা হোটেল রেডিসন ব্লু চট্টগ্রাম বে ভিউর মেজবান হল। অন্যদিনের চেয়ে আজ আলাদা। প্রবেশপথে হাতের বামে সাজিয়ে রাখা হয়েছে বিয়ের বর-কনে পরিবহনের জন্য ঘোড়ার গাড়ি। তরুণ-তরুণীরা ব্যস্ত মুঠোফোনে ছবি তুলতে, আবার কেউ কেউ ক্যামেরায়ও তুলছে ছবি।

মেজবান হলে প্রবেশ করতেই ৬০ ফুট দৈর্ঘ্য আর ২৪ ফুট প্রস্থের বিয়ের মঞ্চ। সেখানেও ঠিক বিয়ের মঞ্চের মতোই তরুণ-তরুণীরা বর-কনের মতো ফটোসেশনে ব্যস্ত। তাদের একজন মঈন চৌধুরী চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বললেন, পাঁচ তারকা হোটেলে বিয়ের মঞ্চ! অনুভূতিটা একটু ভিন্ন, যদিও আমি বিবাহিত। আরেক তরুণ মো. রুবেল বলেন, বিয়ের অনুষ্ঠান রেডিসনে করতে পারব কি না জানি না। তাই সাজানো মঞ্চে ছবি তুলে স্মৃতির ভাণ্ডার সমৃদ্ধ করছি।

এভাবে শুক্রবার (১৮ অক্টোবর) শত শত তরুণ-তরুণী, বিভিন্ন বয়সের দম্পতি তাদের সন্তানদের নিয়ে ভিড় জমান ভায়োলেন্ট ইনকর্পোরেশনের আয়োজনে ‘দি গ্র্যান্ড ওয়েডিং এক্সপো ২০১৯’-এ। কারো কারো পরিকল্পনা, সন্তানের বিয়েতে ঝামেলা কমাতে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠানের হাতে সকল দায়িত্ব ছেড়ে দেবেন। আবার কেউ কেউ চট্টগ্রামের বাইরে না গিয়ে বিয়ের কেনাকাটা এখান থেকে করা যায় কি না- তাও যাচাই করতে এসেছেন। তাদেরই একজন ফাতেমা জান্নাত।

মেলায় ফার্নিচার স্টল।
মেলায় ফার্নিচার স্টল।

ফাতেমার বোন রোমানার বিয়ে জানুয়ারিতে। তিনি জানালেন, যেসব বুটিক হাউজ মেলায় স্টল দিয়েছে তাদের একাধিক প্রতিষ্ঠান খুবই মানসম্পন্ন এবং নান্দনিক পোশাক তৈরি করতে সক্ষম। বলতে পারেন চট্টগ্রামেই আন্তর্জাতিকমানের পোশাক পাওয়া যাচ্ছে।

তার কথার সূত্র ধরে একাধিক স্টল ঘুরে দেখা যায় মেলাতেই আছে ৭৯ হাজার টাকা দামের শাড়ি। যেটি তৈরি করেছে মুনস বুটিকস। মেলায় তাদের বিক্রয় প্রতিনিধি ইরা হাসান জানান, নিজস্ব কারখানায় নিজেদের কারিগর দ্বারা তৈরি এই শাড়ি যেমন নান্দনিক, তেমনি ব্যবহারেও প্রকাশ পাবে আভিজাত্য।

মুনস বুটিকের বিয়ের শাড়ির স্টল।
মুনস বুটিকের বিয়ের শাড়ির স্টল।

হাউজ অব আহমেদের প্রতিষ্ঠাতা আহমেদ তুহিন রেজা জানালেন, মেলার প্রদর্শনীতে তাদের শেরওয়ানির সর্বোচ্চ মূল্য দুই লাখ টাকা। কেউ চাইলে দুই লাখ টাকার শেরওয়ানিতে বিশ লাখ টাকাও খরচ করতে পারবেন।

পিটুপি লাইফ স্টাইলের চেয়ারম্যান ও চিফ ডিজাইনার সাদমান সাইকা সেফা জানান, মেলায় একলাখ ১০ হাজার টাকা মূল্যের লেহেঙ্গা প্রদর্শন করছি। কোনো কাস্টমার যদি আরো বেশি টাকা খরচ করতে চান, তাতে তার মূল্য এবং কোয়ালিটি আরো বৃদ্ধি পাবে।
মেলায় তরুণীদের হাত রাঙাতে ‘রং মেহেদি’ হাজির হয়েছে তাদের নতুন নতুন সব ডিজাইন নিয়ে। তানজিহা মতিন, সাথে রয়েছেন তার আরো চার বোন আফজালুল বিনতে মতিন, তানহা মতিন, বিপাশা মতিন ও ফারিহা মতিন। সাত বছর ধরে এই পেশায় রয়েছেন পাঁচ বোন। শপিং কমপ্লেক্সে প্রতি ঈদে স্টল দিয়ে আসছেন। এছাড়াও তাদের রয়েছে ‘রং মেহেদি ‘ নামে ফেইসবুক পেজ।

বিয়ের কার্ডের ডিজাইন নিয়ে এসছে ওয়েডিং কার্ড ‍বিডির স্টল।
বিয়ের কার্ডের ডিজাইন নিয়ে এসছে ওয়েডিং কার্ড ‍বিডির স্টল।

রং মেহেদি মেলা উপলক্ষে মেহেদি দেওয়াতে রেখেছে বিশেষ ছাড়! ব্রাইডাল মেহেদি ২ হাজার টাকা। দু’হাতের উভয় পাশে সিঙ্গেল করে মেহেদি পরার মূল্য ৪শ’ টাকা। যার নিয়মিত দাম ৬শ’ টাকা। এছাড়া মেহেদির খরচ নির্ভর করবে মেহেদির ডিজাইন কেমন হবে তার ওপর। মেহেদির টিউবগুলোর দাম পড়বে ৫০-২০০ টাকা।

মেলায় ব্যতিক্রমী স্টল বিয়েশাদিবিডি। বিয়েশাদিবিডি এর সেবাগুলো হলো মেট্রিমনিয়াল সার্ভিস, ম্যারেজ কাউন্সেলিং, ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট, ফটোগ্রাফি, সিনেমাটোগ্রাফি ও লিগ্যাল সাপোর্ট।

Biyeshadibd এর প্রধান আশরাফ মাহমুদ চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, আমরা কয়েকজন মিলে এই আয়োজনটি করেছি। এটির মাধ্যমেই আমরা মানুষকে বিয়ে সংক্রান্ত বিষয়ে যতটুকু পারি সাহায্য করি। পরিচিতরা আমাদের বলে, একটা মেয়ে ঠিক করে দে, ফটোগ্রাফার ঠিক করে দে। আমরা যে পুরোপুরি একদম পারফেক্ট পাত্র বা পাত্রী ঠিক করে দিতে পারি বা পারব এমনটি নয়। তবে আমরা সত্য এবং সঠিক তথ্য এনে দিতে পারি। বিয়ের সম্পূর্ণ কথাবার্তা হওয়ার পর যদি কেউ বলে বিয়ের সব আয়োজন করতে, তাও আমরা করে দিই। সম্পূর্ণ অনুষ্ঠানের দায়িত্ব নিয়ে সততার সাথে তা করে দিই। ফটোগ্রাফির ব্যবস্থাও করে দিই।

তিনি আরো জানান, বিয়ের পর যদি দাম্পত্য জীবনে কোনো সমস্যার সৃষ্টি হয়, সে সমস্যা সমাধানেও আমরা কাজ করি। সমাধান দেয়ার চেষ্টা করি। আমাদের নিজেদের আইনজীবীও আছে।

মুনস্টার পেইন্টসের সিনিয়র কর্মকর্তা এসএএম মামুন বলেন, মুনস্টার পেইন্টস চট্টগ্রামেরই পণ্য। এই মেলা যেহেতু চট্টগ্রামকে প্রতিনিধিত্ব করছে তাই আমরাও সাথে থাকতে মেলায় স্পন্সর করেছি।

রেডিসনের গণসংযোগ কর্মকর্তা রাহফাত সালমান বলেন, ‘দি গ্র্যান্ড ওয়েডিং এক্সপো’ একই ছাদের নিচে বিয়ের আয়োজনের সবকিছু একত্র করার একটা প্রয়াস। এটি চতুর্থ আয়োজন। চট্টগ্রামের ঐতিহ্যকে ধারণ করে সামনের দিনেও রেডিসন আরো নতুন নতুন কিছু নগরবাসীকে উপহার দেবে।

শুক্রবার সকাল ১১টায় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন এই মেলার উদ্বোধন করেন। মেলায় বিয়ের পাত্র-পাত্রী দেখা, কেনাকাটা, খাবারের মেন্যু, অনুষ্ঠানের ভেন্যু, ফটোগ্রাফি, ফার্নিচার, হানিমুনের জন্য হোটেল বুকিংসহ বিভিন্ন অফার নিয়ে ৫৫টি প্রতিষ্ঠান অংশ গ্রহণ করছে।

এফএম/এসএএ/জেএস/সিআর

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন