রাতে ২ ট্রাক চাল-ডাল-সয়াবিন পাচারকালে বাঁশখালীতে জনতার হাতে ধরা, পালিয়েছে একটি

ডিলার যুবলীগ সভাপতির কাছের লোক

চট্টগ্রামের বাঁশখালীর সাধনপুর ইউনিয়নের পূর্ব বৈলগাও এলাকা থেকে পাচারকালে বিপুল পরিমাণ টিসিবি পণ্য আটক করেছে স্থানীয় ব্যক্তিরা।

মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) রাত ১০টার দিকে বাঁশখালী সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার মাহমুদুল হাসান মালামালসহ ট্রাকটি জব্দ করেন।

এময় পণ্য পাচারকারী ট্রাক চালক ও তিন সহকারীকে গ্রেপ্তার করেছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে দায়ের করা হয়েছে মামলা।

স্থানীয়রা জানান, দুটি ট্রাকে করে টিসিবির পণ্য রাতে পাচার করার সময় স্থানীয়রা খবর পেয়ে আটকের চেষ্টা চালায়। এ সময় একটি ট্রাক দ্রুত পালিয়ে যায়। একটি ট্রাক তারা আটক করতে সক্ষম হয়।

পরে রাত ১০টার দিকে বাঁশখালী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) খোন্দকার মাহমুদুল হাসান এসে মালামালসহ ট্রাকটি জব্দ করেন।

Yakub Group

জব্দ করা মালামালের মধ্যে রয়েছে, ৬৪০ লিটার সয়াবিন তেল, ৩২০ কেজি চিনি এবং ৬৫০ কেজি ডাল।

এ সময় গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, বাঁশখালীর কালীপুর ইউনিয়নের গুনাগরী গ্রামের বাসিন্দা ট্রাক চালক জিয়াউল হক, ওই ট্রাকের তিন সহকারী সাইফুল ইসলাম, বাপ্পু ও রেজাউল করিম।

স্থানীয়রা এবং গ্রেপ্তার হওয়া দুজন জানান, এসব টিসিবি পণ্য বাহারছড়া ইউনিয়ন থেকে বাঁশখালী প্রধান সড়ক হয়ে পাচার করা হচ্ছিল। বাহারছড়া ইউনিয়নের টিসিবি ডিলার হচ্ছেন আমান উল্লাহ চৌধুরী এবং সাধনপুরের ডিলার হলেন জিল্লুর করিম শরীফি।

বাহারছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হচ্ছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরীর একান্ত সচিব ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি তাজুল ইসলাম চৌধুরী। চেয়ারম্যানের সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে ডিলার আওয়ামী লীগ নেতা জিল্লুর করিম শরীফির। অন্যদিকে আমান উল্লাহ চৌধুরীর সাথে রাজনৈতিকভাবে দীর্ঘদিনের বিরোধ রয়েছে বাহারছড়া ইউপি চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম চৌধুরীর। ডিলার আমান উল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘আমার উঠানো টিসিবি পণ্য আমি বিক্রয় করে দিয়েছি। ইউনিয়ন পরিষদের সচিব আমি যে মালামাল বিক্রয় করেছি তা আমাকে প্রত্যয়নপত্রও দিয়েছে।’

বাঁশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইদুজ্জামান চৌধুরী বলেন, ‘জব্দ করা পণ্য টিসিবিতে ফেরত দেওয়া হবে। গ্রেপ্তার গাড়ি চালক ও তিন সহকারীর বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা হবে। জব্দ টিসিবি পণ্যগুলো কার তা তদন্ত করে বের করা হবে।’

এমএফও

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm