আক্রান্ত
১৫২১৬
সুস্থ
৩১৯৬
মৃত্যু
২৪৫

রাতে হালিশহরে গিয়ে হুমকি ও মারধরের অভিযোগ শুল্ক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে

0

রাতের আঁধারে একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বেআইনিভাবে প্রবেশ করে প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তাকে হুমকি দিয়েছেন এক শুল্ক গোয়েন্দা ও বন্ড কর্মকর্তা। মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) রাতে চট্টগ্রাম নগরীর বন্দর থানা এলাকার দক্ষিণ মধ্যম হালিশহরে রপ্তানিমুখী বন্ড প্রতিষ্ঠান ইহসান এন্টারপ্রাইজে এমন ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ করেছে প্রতিষ্ঠানটি। রাতে বেআইনি প্রবেশের অভিযোগ করে বন্দর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ কিবরিয়া (৩৬)।

ইহসান এন্টারপ্রাইজের ম্যানেজার মোহাম্মদ কিবরিয়া অভিযোগ করে বলেন, ‘মঙ্গলবার রাত ৯টায় ২০-২৫ জন লোক নিয়ে কারখানার ভেতর প্রবেশ করেন শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর চট্টগ্রাম কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক কাওছার পাটোয়ারী। প্রায় ২ ঘণ্টা অবস্থান করে তাদের লেখা কয়েকটি কাগজে আমাকে স্বাক্ষর করতে বাধ্য করে। প্রতিবাদ করলে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে আমাকে এবং প্রতিষ্ঠানের মালিককে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শুল্ক গোয়েন্দা তদন্ত অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক কাউছার পাটোয়ারী বলেন, ‘আকস্মিক পরিদর্শনে গেছি। তাদের সহায়তায় পণ্যের স্টক তালিকা নিয়ে এসেছি। অসামঞ্জস্যতা আছে কিনা তা দেখেছি।’

ভয়ভীতি ও মারধরের চেষ্টা করেছেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘সাক্ষীতালিকায় স্বাক্ষর দিতে বলেছি। কিন্তু সেখানে থাকা ইকবাল নামের এক ব্যক্তি স্বাক্ষর না করেই দৌঁড়ে পালিয়ে গেছে।’

রাতে এমন অভিযান চালানোর নিয়ম আছে কিনা জানতে চাইলে কাউছার পাটোয়ারী বলেন, ‘এটা তো আর বাসা নয়, কারখানা। রাতে অভিযান চালালে সমস্যা নেই। বরং তারাই আমাদের অসহযোগিতা করেছে। আমরা কেবল ১৫-২০ জনের ব্যাকআপ দল নিয়ে গেছি।’

এদিকে রাতে ইহসান এন্টারপ্রাইজে গিয়ে কর্মকর্তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও হুমকি দেওয়া হয়েছে জানিয়ে প্রতিবাদ সভা করে অভিযুক্ত কর্মকর্তার বিচারের দাবি জানিয়েছে চট্টগ্রাম কাস্টমস বন্ড কমার্শিয়াল ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন। বুধবার (১৫ জুলাই) চট্টগ্রাম বন্ড কমিশনারেট কার্যালয়ের সামনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে বক্তারা বলেন, ‘পোশাক রপ্তানির সহায়ক শক্তি হিসাবে কাজ করে গার্মেন্টস এক্সেসরিজ প্রতিষ্ঠানগুলো। সরকারি রেজিস্ট্রেশন পাওয়া এসব প্রতিষ্ঠানে যাওয়ার আগে কর্তৃপক্ষকে জানাতে হয়। কোন ধরনের নোটিশ ছাড়া রাতের আঁধারে ২০-২৫ জন লোক নিয়ে পরিদর্শনের নামে ব্যবসায়ীদের অপদস্ত করা হচ্ছে।’

চট্টগ্রাম কাস্টমস বন্ড কমার্শিয়াল ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সম্পাদক আনিছুর রহমান বলেন, ‘দালাল নিয়ে গড়ে ওঠা সিন্ডিকেটের অবৈধ বাণিজ্য রক্ষায় স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানে এ ধরনের নিয়মবহির্ভূত অভিযান চালানো হচ্ছে।’

এএস/এসএস

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ManaratResponsive

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm