রাঙ্গুনিয়ায় দুই ভাই হত্যা মামলায় ২ আসামি গ্রেপ্তার

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় দুই ভাইকে কুপিয়ে হত্যা মামলায় দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

গ্রেপ্তার আসামিরা হলেন রাঙ্গুনিয়ার পশ্চিম খুরুশিয়ার মো. শফিকুল ইসলামের ছেলে মো. সাইফুল ইসলাম ওরফে সাইফু (৪২) ও মো. মোর্শেদুল আলম (২২)।

মঙ্গলবার (২০ ডিসেম্বর) রাতে নগরীর বন্দর থানা এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। বুধবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুরে তাদের আদালতে পাঠানো হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার বলেন, ‘গত ১৬ ডিসেম্বর দুপুরে বাড়ির পাশের জমিতে জালাল উদ্দিন গরুকে ঘাস খাওয়াতে গিয়ে সেখানে বেঁধে রেখে আসেন। বিকাল ৫টার দিকে গিয়ে গরুর গলার রশি খোলা অবস্থায় দেখতে পান। একপর্যায়ে সেটি শফিকুল ইসলাম নামে একব্যক্তির হাতে দেখতে পেয়ে তার সঙ্গে বাকবিতণ্ডা হয়। এরপর জালালকে মারধর করেন শফিকুল।’

তিনি বলেন, ‘জালালের চিৎকার শুনে লোকজন ছুটে আসলে শফিকুল জালালকে ‘দেখে নেবে’ বলে হুমকি দিয়ে চলে যায়। পরে ওইদিন বিকালে পশ্চিম খুরুশিয়ায় রাস্তার ওপর শফিকুল তার তিন ছেলেসহ জালালকে মারধর করে। এ সময় শফিকুলের ছেলে খোরশেদ তার হাতে থাকা ধারালো ছোরা দিয়ে জালালের বুকে আঘাত করেন। তাকে বাঁচাতে ভাই কামাল এগিয়ে আসলে তাকেও শফিকের আরেক ছেলে মোর্শেদুল ছুরি দিয়ে আঘাত করেন।’

নুরুল আবছার বলেন, ‘তাদের চিৎকার শুনে আত্মীয়স্বজনরা ছুটে আসলে শফিকুল ও তার ছেলেরা তাদের দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মারধর করে পালিয়ে যায়। এতে আহত হন ইদ্রিছ নামের এক ব্যক্তি ও তার তিন ছেলে। তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার আগে দুই ভাইয়ের মৃত্যু হয়। ঘটনার পরদিন নিহতের মা বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন।’

Yakub Group

তিনি আরও বলেন, ঘটনাটি নৃশংস ও লোমহর্ষক হওয়ায় আসামিদের ধরতে র‌্যাব গোয়েন্দা নজরদারি শুরু করে। গত মঙ্গলবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নগরীর বন্দর থানার পূর্ব নিমতলা ডিয়ারপাড়া একটি ভবন থেকে আত্মগোপনে থাকা মামলার ৪ নম্বর আসামি সাইফুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যমতে, পশ্চিম গোসাইল ডাঙার একটি বাড়ি থেকে দিবাগত রাত দেড়টায় আসামি মোর্শেদকে গ্রেপ্তার করা হয়।’

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। তাদের থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

আইএমই/ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm