রাঙামাটিতে ‘হাইড্রোক্যাফালাস’ রোগে আক্রান্ত শিশুর জন্ম

রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে স্বাভাবিকের চেয়ে প্রায় আড়াই গুণ বড় মাথা নিয়ে এক শিশুর জন্ম হয়েছে। আকারে বড় মাথা নিয়ে জন্ম নেওয়ার রোগটির নাম হাইড্রোক্যাফালাস বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় জন্ম নেওয়া এই শিশু ও তার মা (প্রসূতি) দু’জনই সুস্থ আছেন বলে জানিয়েছেন ডা. মাসুদ রহমান। শিশুটির বাবা সমিত চাকমা ও মা লিলি চাকমা। তারা রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, দু’দিন প্রসব যন্ত্রণা নিয়ে খাগড়াছড়ি জেনারেল হাসপাতালে থাকার পর লিলি চাকমাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করে খাগড়াছড়ি আধুনিক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু অর্থের অভাবে তারা চট্টগ্রাম যেতে না পেরে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে এসে ভর্তি হন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় লিলি চাকমা রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হলে গাইনি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তার শারীরিক অবস্থা খারাপ দেখে সন্ধ্যা ৭টার দিকে অপারেশন করান। এতে স্বাভাবিকের চেয়ে প্রায় আড়াই গুণ বড় মাথা নিয়ে জন্ম নেয় শিশুটি।

চিকিৎসক জানান, স্বাভাবিকের চেয়ে বড় মাথা নিয়ে জন্ম নেওয়ার রোগটির নাম হাইড্রোক্যাফালাস। শিশু গর্ভে থাকাকালীন সময়ে মাথার ব্রেইন থেকে মেরুদণ্ডে পানি যাওয়ার ছিদ্রপথটি আটকে যাওয়ার কারণে এটি হয়ে থাকে। তবে অপারেশনের মাধ্যমে এই রোগ ভাল হয়।

রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালের গাইনি চিকিৎসা ডা. মাসুদুর রহমান জানান, দু’দিন প্রসব যন্ত্রণা নিয়ে লিলি চাকমা হাসপাতালে ভর্তি হলে তার অবস্থা খারাপ দেখে আমরা সঙ্গে সঙ্গে অপারেশনের সিদ্ধান্ত নিই। অপারেশনের পর মা এবং শিশু দু’জনই সুস্থ আছে। শিশুটির মাথার পানি মেরুদণ্ডে যাওয়ার যে ছিদ্র, সেটি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এই স্বাভাবিকের চেয়ে দুই থেকে আড়াই গুণ বড় আকারের মাথা নিয়ে শিশুটি জন্ম নিয়েছে। এটিকে আমরা হাইড্রোক্যাফালাস রোগ বলি। এই রোগ অপারেশনের মাধ্যমে ভালো হয়। শনিবার হাসপাতালে নিউরোলজি ডাক্তার আসলে আমরা পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

Yakub Group

এদিকে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) শওকত আকবর খান বলেন, ‘রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে সন্ধ্যার দিকে অস্বাভাবিক এক নবজাতকের জন্ম হয়েছে। ডাক্তার মাসুদুর রহমান সিজার করেছেন। বর্তমানে মা ও নবজাতক দু’জনই হাসপাতালে ভর্তি আছেন।’

ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm