যৌননিপীড়ক দুই ছাত্রের জন্য চবির দরজা আজীবন বন্ধ

আরও দুজনের জন্য সুপারিশ যাবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে

0

এক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়ন ও বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের ঘটনায় জড়িত থাকার ‘অভিযোগে’ দুই শিক্ষার্থীকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) কর্তৃপক্ষ।

শনিবার (২৩ জুলাই) সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব হেলথ, রেসিডেন্স অ্যান্ড ডিসিপ্লিনারি কমিটির বিশেষ সভায় তাদের বহিষ্কার করা হয়।

বহিস্কৃতরা হলেন— ইতিহাস বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মো. আজিম, নৃবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী নুরুল আবছার বাবু।

চবি প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভূঁইয়া জানান, ‘ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের ঘটনায় জড়িত আটক ৪ শিক্ষার্থীর মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ শিক্ষার্থীকে স্থায়ীভাবে বহিস্কার করা হয়েছে। বাকি দুজনের বিষয়ে একই ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে সুপারিশ করবে কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে আরও একজনকে আটক করা হয়েছে। মোট আটক ৫ জন। বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব হেলথ অ্যান্ড ডিসিপ্লিনারি কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়েছে।’

শুক্রবার (২২ জুলাই) দিবাগত রাতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ৪ জনকে আটক করে র‌্যাব। এরা হলেন— চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাস বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মো. আজিম, নৃবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র নুরুল আবছার, হাটহাজারীর ফতেহপুর ইউনিয়নে বাসিন্দা ও হাটহাজারী কলেজের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র ছাত্র নুর হোসেন ওরফে শাওন এবং হাটহাজারী কলেজের অর্নাস দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মো. মাসুদ রানা।

Yakub Group

এছাড়া শনিবার (২৩ জুলাই) সাইফুল নামে আরও একজনকে আটক করেছে র‌্যাব-৭। এ নিয়ে মোট ৫ জনকে আটক করা হয়েছে।

১৭ জুলাই রাত সাড়ে ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের এক ছাত্রী তার বন্ধুসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টেশন চত্বর থেকে মূল ক্যাম্পাসের দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময় দুটি মোটরসাইকেলে আসা অন্তত ৫ জন ছেলে তাদের দুজনের পথ আটকায়। একপর্যায়ে ওই ছাত্রীর সাথে থাকা ছেলেটিকে তারা মারধর শুরু করে। ওই সময় তাদের কাছে থাকা ৩ হাজার ৭০০ টাকা টাকা এবং দুজনের দুটি মোবাইল ফোন ছিনতাই করে নেয় ওই ছেলেরা।

ছিনতাই করার পর বোটানিক্যাল গার্ডেনের পেছনের দিকের অন্ধকার রাস্তায় নিয়ে গিয়ে ওই ছাত্রীর কাপড় খুলে মোবাইলে ভিডিও ধারণ করে অন্তত ৫ জনের ওই দুর্বৃত্তদল। এ সময় ওই ছাত্রীকে গাছের সাথে বেঁধে যৌন হয়রানিও করা হয়। এরপর তাকে হুঁশিয়ার করে দেওয়া হয় যে, সে যদি এই ঘটনা অন্য কোথাও বলে তাহলে সেই ভিডিও প্রকাশ করে দেওয়া হবে। পরে মোটরসাইকেলে করে ওই ছেলেরা সরে পড়ে।

পরে ভুক্তভোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে কতৃপক্ষ। এ ঘটনার প্রতিবাদে গত ২০ ও ২১ জুলাই দফায় দফায় আন্দোলন করে আসছে চবি শিক্ষার্থীরা।

আরএম/সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm