যে কারণে খুলশীতে ট্রেনের সঙ্গে বাস-সিএনজির সংঘর্ষ, জানালো পুলিশ

0

চট্টগ্রামের খুলশী থানা এলাকার ঝাউতলা দুর্ঘটনার পর পরই সিএনজি এবং বাসটি রেল ক্রসিংয়ের সিগন্যাল অমান্য করে পার হতে গেলে ট্রেনের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় বলে জানা যায়। কিন্তু পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, রেল ক্রসিংয়ের ব্যারিকেড না ফেলায় ডেমু ট্রেনের সাথে সিএনজি ও বাসের সংঘর্ষ হয়েছে। এই দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত হয়েছেন। যাদের একজন ট্রাফিক পুলিশের সদস্য, অন্যজন সিএনজির যাত্রী। এই ঘটনায় ১০ জন আহত হয়েছেন, যাদের মধ্যে ৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

শনিবার (৪ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

চট্টগ্রাম নগর ট্রাফিক পুলিশের উত্তর শাখার পরিদর্শক (এডমিন) মো. সেলিম চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘আমরা এখনো বিস্তারিত জানি না। তবে আপাতত এতটুকু আমরা নিশ্চিত হয়েছি রেল ক্রসিংয়ের ব্যারিকেড ফেলা হয়নি। আর সেখানে একটা সিএনজিকে ডেমু ট্রেন ধাক্কা দিয়েছে। এতে স্পটে একজন যাত্রী নিহত হয়েছেন আর দায়িত্বরত একজন ট্রাফিক সদস্য হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা গেছেন। নিহত ট্রাফিক সদস্যের নাম মনির।’

ফাহিম সামাদ নামের একজন চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘পূর্ব পাশের ব্যারিকেড না থাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। সিগন্যালের পূর্বপাশে থাকা সিএনজিকে ৭ নম্বর রুটের একটি বাস পেছন থেকে ধাক্কা দিলে সিএনজি রেললাইনে উঠে যায়। এসময় ডেমু ট্রেন সিএনজিটিকে ধাক্কা দেয়।’

চট্টগ্রাম রেলওয়ে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হাছান চৌধুরী বলেন, ‘শনিবার সকালে রেলক্রসিংয়ে ডেমু ট্রেনের সঙ্গে ত্রিমুখী সংঘর্ষে দুজন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছে। রেল সিগন্যাল অমান্য করার কারণেই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।’

এদিকে আহতদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ। নিহত দুজনের মরদেহ মেডিকেলের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এআরটি/এমএফও/এমএহক

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm