মোহনবাগানের কাছে হেরে চ্যাম্পিয়ন টিসি স্পোর্টসের বিদায়

0

টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচেই স্বাগতিক ও প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়ন চট্টগ্রাম আবাহনীর কাছে বড় ব্যবধানে হারের তিক্ত স্বাদ পেয়েছিল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মালদ্বীপের টিসি স্পোর্টস ক্লাব। অন্যদিকে লাওসের ইয়াং এলিফ্যান্টসের কাছে হেরে গিয়েছিল ভারতের ঐতিহ্যবাহী দল মোহনবাগান। নিজেদের প্রথম ম্যাচে হেরে যাওয়া এই দু’দল বুধবার চট্টগ্রামের এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয় টুর্নামেন্টে টিকে থাকার লড়াইয়ে। আর তাতে মোহনবাগানের কাছে ২-০ গোলর হেরে বিদায় হলো চ্যাম্পিয়ন টিসি স্পোর্টসের।

শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপে বুধবারের এই হারে গ্রুপ ‘এ’ থেকে সবার আগে বিদায় নিশ্চিত হল টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় আসরের চ্যাম্পিয়ন টিসি স্পোর্টসের। প্রথম ম্যাচে স্বাগতিক চট্টগ্রাম আবাহনীর কাছে ৪-১ গোলে হেরেছিল দলটি।

অন্যদিকে লাওসের ক্লাব ইয়ং এলিফ্যান্টসের কাছে ২-১ গোলের হার দিয়ে শুরু করা মোহনবাগান বাঁচিয়ে রাখল শেষ চারের স্বপ্ন। গ্রুপপর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে শুক্রবার চট্টগ্রাম আবাহনীর বিপক্ষে জয়ের কোনো বিকল্প নেই পশ্চিমবঙ্গের জায়ান্টদের।

প্রথম ম্যাচে হারের কারণে টিসির বিপক্ষে চার পরিবর্তন নিয়ে দল সাজান মোহনবাগান কোচ হোসে ভিচুনা। ফলটা মিলেছে হাতেনাতেই। চতুর্থ মিনিটে টিসি স্পোর্টসের ডি-বক্সের জটলার সুযোগে সতীর্থের বাড়ানো পাসে ডান পায়ের শটে গোল আদায় করেন মোহনবাগানের ত্রিনিদাদ এন্ড টোবাগোর ডিফেন্ডার ড্যানিয়েল সাইরাস।

ম্যাচের ৬৪ মিনিটে মোহনবাগানের ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সালভাদর পেরেজ মার্টিনেজ। স্বদেশী হুলেন কলিনাসের পাস থেকে ডি-বক্সে ফাঁকা জায়গায় বল পেয়েছিলেন স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড। পরে কোনাকুনি শটে লাফিয়েও ঠেকাতে পারেননি টিসি গোলরক্ষক।

সারা ম্যাচে মোহনবাগানের ছায়ায় পড়ে থাকা টিসি খেলায় সেরা সুযোগ পায় ৮০ মিনিটের সময়। গোলরক্ষককে একা পেয়েও পরাস্ত করতে পারেননি দলের একমাত্র বিদেশি নেপালি ফরোয়ার্ড বিমল ঘাত্রী মাগার।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন