মুখোমুখি বাকযুদ্ধে চট্টগ্রামের দুই আওয়ামী লীগ-যুবলীগ নেতা

0

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের আলোচনা সভায় মুখোমুখি বাকবিতণ্ডায় জড়ালেন চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের সাবেক আহবায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু এবং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী। পরে আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতাদের হস্তক্ষেপে তাদের বাকবিতণ্ডা থামে।

মুখোমুখি বাকযুদ্ধে চট্টগ্রামের দুই আওয়ামী লীগ-যুবলীগ নেতা 1

রোববার (২৪ জুলাই) বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সাবেক সদস্য, গণপরিষদ সদস্য ও সাবেক সংসদ সদস্য মুহাম্মদ ইসহাক মিয়ার পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় এ ঘটনা ঘটে।

সভাস্থলে উপস্থিত আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের একাধিক সূত্রে জানা গেছে, সকালে নগরীর আগ্রাবাদের বাদাতমলী মোড়ে গুলশান কমিউনিটি সেন্টারে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী। সভা সঞ্চালনা করেন নগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কাউন্সিলর চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সভা সঞ্চালনায় উপস্থিতির মধ্যে নিজের নাম না বলায় ক্ষিপ্ত হন মহিউদ্দিন বাচ্চু। তিনি এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেন প্রকাশ্যে। এর একপর্যায়ে মহিউদ্দিন বাচ্চু মঞ্চের ডায়াসের পাশে থাকা হাসনীর পাশাপাশি চলে যান। এ সময় তারা বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন জ্যেষ্ঠ নেতাদের সামনেই। পরে নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীসহ আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতাদের হস্তক্ষেপে তাদের সেই বাকযুদ্ধ থামে।

Yakub Group

এ বিষয়ে জানতে চাইলে চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী বলেন, ‘আমার সাথে এই ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি। আমরা এমনে অন্য কথা বলেছি।’

তর্কাতর্কি হয়নি জানিয়ে মহিউদ্দিন বাচ্চু বলেন, ‘আমাদের মাঝে প্রায় সময় কথা হয়। ওই সময় কথা বললে সাংগঠনিক ব্যাপারে কথা বলেছি। বাকবিতণ্ডা তো হয়নি।’

৩০ মে নগর যুবলীগের সম্মেলনে আওয়ামী লীগের প্রাথমিক সদস্য হন মহিউদ্দিন বাচ্চু। এরপর থেকে নিয়মিত আওয়ামী লীগের সভা-সমাবেশে দেখা যাচ্ছে নগর যুবলীগের সাবেক এই আহবায়ককে।

আরএম/সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm