মিতু হত্যা মামলায় সাক্ষ্য দিলেন আরও ১০ জন, পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণ ২৮ নভেম্বর

সাবেক পুলিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলায় আরও ১০ জন আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন। এনিয়ে ৭৯ জন সাক্ষীর মধ্যে ৩২ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে।

আগামী ২৮ নভেম্বর মামলার পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ঠিক করেছেন তৃতীয় অতিরিক্ত চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক জসিম উদ্দিন।

সাক্ষী দেওয়া ১০ জন হলেন ইপিক হেলথ কেয়ারের ইঞ্জিনিয়ার সোহেল রানা, ম্যানেজার (এডমিন) আরেক হোসেন, জুমাইরা হোল্ডিংস কাতালগঞ্জের ম্যানেজার আতিক হাসান, কেয়ারটেকার সাহাব উদ্দিন, হোটেল ওয়েল পার্কের ম্যানেজার মঈনুল হাসান, কর্মকর্তা বিশ্বনাথ দাশ, ওয়েল ফুডের আইটি অফিসার শহীদুল আলম, কর্মচারী আলাউদ্দিন, সাবেক ডিবি এএসআই নজরুল ইসলাম (ফুটেজ কালেকশন) ও কনস্টেবল মিল্টন দে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেন আদালতের বেঞ্চ সহকারী নেছার আহম্মেদ।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, এনিয়ে মামলায় ৩২ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে। এসময় মিতুর স্বামী সাবেক পুলিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তারসহ অন্যান্য আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

সাক্ষীদের মধ্যে ডিবির এএসআই নজরুল ইসলাম ও কনস্টেবল মিল্টন দে ঘটনার বিভিন্ন স্থানের সিসিটিভি ফুটেজ কালেকশন করেছেন এবং বাকিরা সিসিটিভি ফুটেজ সরবরাহ ও প্রত্যক্ষদর্শী ছিলেন।

চট্টগ্রাম মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট আবদুর রশীদ বলেন, ‘সাক্ষীদের মধ্যে পুলিশের দু’জনকে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা জেরা করেছেন। আগামী ২৮ নভেম্বর পরবর্তী দিন ধার্য করা হয়েছে। ওইদিনও ১০ জনের সাক্ষ্য নেওয়া হবে।’

২০১৬ সালের ৫ জুন চট্টগ্রামের ও আর নিজাম রোডে ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার সময় দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে খুন হন মিতু।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!