মিতু হত্যার আসামী মুছাকে ধরিয়ে দিতে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা

প্রতিদিন রিপোর্ট :

চট্টগ্রামে পুলিশ সাবেক সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলার আসামি মুছাকে ধরিয়ে দিতে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছে সিএমপি। হত্যাকাণ্ডের ৫ মাসের মাথায় আজ ৬ অক্টোবর চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ সিএমপি আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ কমিশনার এ ঘোষণা দেন।

%e0%a7%8d%e2%80%8c%e0%a7%8d
সংবাদ সম্মেলনে সিএমপি কমিশনার ইকবাল বাহার বলেন, এ মামলার অন্যতম আসামী মুছাকে ধরতে পুলিশ সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে। তিনি মুছাকে গ্রেফতারে জনগণের সহযোগিতা চেয়ে বলেন, যদি কেউ ধরিয়ে দিতে পারে তাহলে তাকে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার দেওয়া হবে।
তিনি বলেন, মাহমুদা আক্তার মিতু হত্যাকান্ডের পর এ পর্যন্ত মোট ৭ জনকে আটক করা হয়েছে। তার মধ্যে দু জন ইতোমধ্যে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। তারা মুছার নির্দেশেই উক্ত হত্যকান্ড ঘটিয়েছে বলে জবানবন্দিতে স্বীকার করেন।
মিতু হত্যা মামলার অনেক অগ্রগতি হয়েছে বলে দাবী করেন পুলিশ কমিশনার ইকবাল বাহার বলেন খুব স্বল্প সময়ে মিতুর স্বামী সাবেক পুলিশ সুপার বাবুল আক্তার চট্টগ্রামে এসে মামলার তদন্ত কর্মকর্তার সাথে কথা বলবেন।
কমিশনার আরো বলেন, মুছা কি নিজে প্ররোচিত হয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছে ? নাকি তাকে কেউ প্ররোচিত বা নির্দেশ দিয়েছে তা জানার দরকার। এ জন্য তাকে আটক করা পুলিশের জন্য খুবই প্রয়োজন।
তিনি বলেন, মুছা যাতে দেশ ত্যাগ করতে না পারে এ জন্য ইতোমধ্যে দেশের সবগুলো স্থানে রেড এলার্ট জারি করা হয়েছে। দেশের বর্ডার গুলোতে চিঠি পাঠানো হয়েছে।
মুছা পুলিশের জন্য এখন খুবই গুরুত্বপূর্ন বিষয় বলে উল্লেখ করেন পুলিশ কমিশনার। মুছাকে আইনশৃংখলা বাহিনী আটক করেছে মুছার স্ত্রীর এমন দাবীর বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পুলিশ কমিশনার বলেন আমরা মুছাকে এখনো পর্যন্ত আটক করতে পারিনি।
মুছার স্ত্রী যদি প্রমান করাতে পারেন সেটা তার বিষয়। কোর্ট প্রমান চায়।
উল্লেখ্য : চলতি বছরের ৫ জুন সকালে চট্টগ্রাম মহানগরীর ও আর নিজাম রোডে দুর্বৃত্তদের উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত ও গুলিতে নিহত হন পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম ‍মিতু। এসময় তিনি ছেলেকে স্কুল বাসে তুলে দেয়ার জন্য বাসা থেকে জিইসির মোড় যাচ্ছিলেন। এ ঘটনার পর সারাদেশে ব্যাপব চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। কিন্তু ৫ মাসেু এ হত্যাকাণ্ডের কোন ক্লু বের করতে পারেন নি।

 

পি এন

এ এস / জি এম এম / আর এস পি :::

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!