মার্কিন সেনা অফিসার চট্টগ্রামের মেয়ে পম্পি (ছবির গ্যালারি)

0

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের মেয়ে আফিয়া জাহান পম্পি। কখনও কি তার ধারণাও হয়েছিল, মার্কিন সেনাবাহিনীতে তিনি অফিসার হিসেবে কাজ করবেন? হ্যাঁ কিংবা না—যাই হোক না কেন, স্বপ্নের মতোই ২০ বছর বয়সী মেয়েটির অভিষেক হয়েছে মার্কিন সেনাবাহিনীর অফিসার হিসেবে। এরকম গুরুত্বপূর্ণ পদে বাংলাদেশের একটি মেয়ে কাজ করছেন—এটাই রীতিমতো গর্বের।

বাবা-মার সঙ্গে মার্কিন সেনাবাহিনীর অফিসার আফিয়া জাহান পম্পি
বাবা-মার সঙ্গে মার্কিন সেনাবাহিনীর অফিসার আফিয়া জাহান পম্পি

চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার বারইয়ার হাট পৌরসভার জামালপুর গ্রামে আফিয়া জাহান পম্পির বাড়ি। তার জন্মও চট্টগ্রামেই।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার আগে আফিয়ার বাবা মেজবাহ উদ্দিন ব্যবসা করতেন চট্টগ্রাম শহরে। ২০০০ সালে তিনি অভিবাসী হিসেবে সপরিবারে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যান। সেই শৈশবকালে, বয়স তখন ১ কি ২—মা-বাবার সঙ্গে আমেরিকায় চলে যান আফিয়া।

নিউ ইয়র্কের সাংস্কৃতিক সংগঠন বিপার অনুষ্ঠানে আফিয়া জাহান পম্পি
নিউ ইয়র্কের সাংস্কৃতিক সংগঠন বিপার অনুষ্ঠানে আফিয়া জাহান পম্পি

আফিয়ার বাবা মেজবাহ উদ্দিন সংগঠন অন্তঃপ্রাণ মানুষ। মিরসরাই অ্যাসোসিয়েশন এনএর (উত্তর আমেরিকা) সভাপতি তিনি। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নানা সাংগঠনিক কার্যক্রমেও দেখা যায় তাকে। বাবার সাংগঠনিক গুণ পেয়েছেন আফিয়া জাহান নিজেও। এক যুগের বেশি সময় ধরে তিনি নিউইয়র্কের জনপ্রিয় সাংস্কৃতিক সংগঠন বিপার সঙ্গে জড়িত।

শৈশবে যখন আমেরিকা যান, তখন থেকেই নাচ, গান ও সাহিত্য চর্চায় তার আলাদা আগ্রহ। নাচসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে সাফল্যের জন্য পেয়েছেন নানা পুরস্কারও। পড়াশোনাও বাদ যায়নি। বর্তমানে তিনি ফার্মিং ডেল স্টেট কলেজের ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সের চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্রী।

সিলেটের জাফলংয়ে আফিয়া জাহান পম্পি
সিলেটের জাফলংয়ে আফিয়া জাহান পম্পি

নিউইয়র্কের ব্রুকলিনের চার্চ ম্যাকডোনাল্ডে বসবাসরত আফিয়াদের পরিবারে মা নুরুচ্ছাবাহ পূর্ণিমা ছাড়াও আছেন আরও দুই সদস্য। তার দুই বোন সাদিয়া ও পৃথা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

মার্কিন সেনাবাহিনীতে মেয়ের অভিষেকে দারুণ খুশি বাবা মেজবাহ উদ্দিন। জানালেন, ‘মার্কিন সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়ে আমার মেয়ে নতুন এক স্বপ্ন-যাত্রা শুরু করেছে।’

বাবা-মা ও দুই বোনের সঙ্গে আফিয়া জাহান পম্পি
বাবা-মা ও দুই বোনের সঙ্গে আফিয়া জাহান পম্পি

আফিয়া জাহানও শৈশবের স্বপ্নের কথাই স্মরণ করলেন—‘আমেরিকা আমাদের দেশ। এ দেশকে আমি আমার কাজ দিয়ে কিছু দিতে চাই। এ প্রত্যয় আমার শৈশব থেকেই।’

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন