মাদক মামলায় ইয়াবা কারবারির ৭ বছরের সাজা

কক্সবাজারের টেকনাফের হ্নীলায় বসতবাড়ি থেকে ৩০ হাজার ইয়াবা উদ্ধারের মামলায় এক আসামির সাত বছর সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে দুই লাখ টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে আরও ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

দণ্ডিত আসামির নাম মো. আইজ উদ্দিন। তিনি টেকনাফের হ্নীলা নয়াপাড়ার পশ্চিম সাতঘরিয়া পাড়ার মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে। এই মামলার পলাতক আসামি মো. শামসুদ্দিন ও হাজতি আসামি মো. আইয়ুবের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের খালাস দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) শুনানি শেষে কক্সবাজারের সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইল এই রায় ঘোষণা করেন।

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন জেলা জজ আদালতের নাজির বেদারুল আলম।

মামলার নথির সূত্রে তিনি জানান, ২০১৮ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর টেকনাফের হ্নীলা পশ্চিম সাতঘরিয়া পাড়ার মো. আইজ উদ্দিনের বসতবাড়ি থেকে ৩০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করে র‌্যাব-৭। পরে এই ঘটনায় তিনজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন টেকনাফ ক্যাম্পের ডিএডি মো. আব্দুর রহমান।

রাষ্ট্রপক্ষের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট ফরিদুল আলম জানান, মাদকের মামলাটি তদন্তের পর আসামি আইজ উদ্দিন, মো. শামসুদ্দিন মো. আইয়ুবের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে অভিযোগপত্র দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) এসএম আতিক উল্লাহ। ২০২০ সালের ১৫ মার্চ মামলার অভিযোগ গঠন করা হয়। ঘটনার চার বছর পাঁচ মাসের মাথায় বিচার প্রক্রিয়া শেষে রায় দিয়েছেন আদালত।

ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!