মাইক্রোবাসে হঠাৎ বিস্ফোরণে দগ্ধ ২০ যাত্রী, তিনজনই শিশু

0

চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে যাত্রী পৌঁছে দিয়ে সাতকানিয়ায় ফেরার পথে পটিয়ায় মাইক্রোবাসের (হাইএইস) শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের কম্প্রেসার বিস্ফোরিত হয়ে ২০ জন যাত্রী দগ্ধ হয়েছে। এদের মধ্যে তিনজন শিশু। গুরুতর আহত ১৭ জনকে ঘটনার পরপরই চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) দিবাগত রাত সাড়ে ১০টায় পটিয়া পৌরসভার পিটিআই ট্রেনিং সেন্টারের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পটিয়া থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা পথচারীদের সহায়তায় আহতদের উদ্ধার করে পটিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কিন্তু তাদের সবার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কিছুক্ষণ পর সবাইকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের কম্প্রেসার বিস্ফোরিত হয়ে দগ্ধ যাত্রীরা
শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের কম্প্রেসার বিস্ফোরিত হয়ে দগ্ধ যাত্রীরা
s alam president – mobile

আহতদের মধ্যে রয়েছেন আবুল কালাম, আবদুল আলম, মোহাম্মদ জহির, আরিফ, তৌহিদুল ইসলাম, লোকমান মিয়া, ইদ্রিস মিয়া, মো. হেলাল, মো. বেলাল, মো. জাহাঙ্গীর, মো. মামুন ও মো. আবির।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, সাতকানিয়া উপজেলার এক প্রবাসী ঢাকা মেট্টো-চ-১৩-৩০৬৬ নম্বরের একটি মাইক্রোবাস (হাইএইস) নিয়ে চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে যান। ওই প্রবাসীকে নামিয়ে দিয়ে সাতকানিয়ায় ফেরার পথে পটিয়া পৌরসভার পিটিআই এলাকায় পৌঁছলে গাড়িটির শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের কম্প্রেসার হঠাৎ বিস্ফোরিত হয়। বিস্ফোরণের আগুনে গাড়িতে থাকা ২০ জন যাত্রী দগ্ধ হন। পটিয়া থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা পথচারীদের সহায়তায় আহতদের উদ্ধার করে।

শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের কম্প্রেসার বিস্ফোরিত হয়ে দগ্ধ যাত্রীরা
শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের কম্প্রেসার বিস্ফোরিত হয়ে দগ্ধ যাত্রীরা
Yakub Group

এ ব্যাপার পটিয়া হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক সৈয়দ রিদুয়ানুল হক চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে জানান, গাড়ির এসির কম্প্রেসার বিস্ফোরণে ২০ জন আহত হয়েছে। এদের মধ্যে ৩ জন শিশু রয়েছে। আগুন পুড়ে যাওয়ার কারণে তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!