আক্রান্ত
২৪৬০৪
সুস্থ
২০৭৪৯
মৃত্যু
৩১৮

মধ্যরাতে চট্টগ্রামের অলিগলিতে হঠাৎ দলে দলে ‘জিকির’ (ভিডিও)

3

রাত ১০টায় ঘরে ঘরে করোনা মুক্তির আজানের ঘটনার রেশ শেষ হতে না হতেই চট্টগ্রাম নগরী ও বিভিন্ন উপজেলায় ঘটলো অভিনব এক ঘটনা। বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) দিবাগত রাত ১২টার পর চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন এলাকার পথে পথে দল বেঁধে ‘জিকিরে’ নামতে দেখা গেছে প্রচুর লোককে। উচ্চস্বরে ‘জিকির’ করতে করতে এসব মানুষকে ঘুরে বেড়াতে দেখা গেছে শহরের বিভিন্ন অলিগলি। এমনকি চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলার রাস্তাঘাটেও এমন চিত্র দেখা গেছে বলে খবর মিলেছে।

বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে চট্টগ্রামের হালিশহর এলাকাতে এরকম একটি মিছিলের দেখা মিলেছে। এছাড়া রঙ্গিপাড়া, মোল্লাপাড়া, মুহুরীপাড়া, চৌমুহনী, পানওয়ালাপাড়া, হাজীপাড়া, উত্তর আগ্রাবাদ, ঈদগা বড় পুকুরপাড় এলাকাতেও এই ধরনের জিকিরের খবর পাওয়া গেছে।

রাত ১২টার দিকে চট্টগ্রামের দ্বীপ উপজেলা সন্দ্বীপে ফোন করে জানা গেছে, সেখানেও দল বেঁধে রাস্তায় মিছিল করেছেন মানুষজন।

জানা গেছে প্রতিটি মিছিলের ধরন ছিল একই। একদল মানুষ ‘নারায়ে তাকবীর আল্লাহ আকবর’, ‘কোরান হাদিসের আলো ঘরে ঘরে জ্বালো’ ইত্যাদি শ্লোগানসহ এসব মিছিলে অংশ নেয়।

কাদের উদ্যোগে এই দলবদ্ধ জিকিরের আয়োজন আর কিভাবেই বা তারা এরকম সংগঠিত হলো— এই বিষয়ে স্পষ্ট বলতে পারছে না কেউই। তবে হঠাৎ করেই মাঝরাতে হওয়া এসব মিছিল আতঙ্ক ছড়িয়েছে সবখানে। পাশাপাশি করোনা ভাইরাস সংক্রমণ বিষয়ে সতর্কতা হিসেবে যে সামাজিক দুরত্বের কথা কঠোরভাবে পালনের কথা বলা হচ্ছে তার শর্ত ভঙ্গের কারণেও এসব মিছিল নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে। কেউ কেউ এ ধরনের উদ্যোগকে স্বাগত জানালেও অনেকে এই ধরনের তৎপরতাকে ধর্মীয় গোঁড়ামি ও গুজব সৃষ্টিকারী হিসেবে উল্লেখ করে এসবের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে কঠোর হওয়ার আহবান জানিয়েছেন।

এআরটি/সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ManaratResponsive
3 মন্তব্য
  1. মোহাম্মদ সালাহউদ্দিন বলেছেন
  2. Utpal বলেছেন

    Obilombe Eder biruddhe ainanug babostha neya hok…

  3. Emon বলেছেন

    Still Garments at Savar is open. It’s like the workers of these Garments are not human being. They are just machine who are only to keep our economy run. No Corona can touch them at all.

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm